29 C
Kolkata

Anubrata Mondal : কেষ্টর কপালে জুটল ‘গরুচোর’ উপাধি

নিজস্ব প্রতিবেদন : গরুপাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলকে সোমবার নিজাম প্যালেসে হাজিরার নির্দেশ দেয় সিবিআই। এই নিয়ে গরুপাচার মামলায় মোট ন’বার অনুব্রতকে তলব করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। ষষ্ঠ বারের তলবে গিয়েছিলেন তিনি। নবম বার তলবের দিন ‘অসুস্থ’ অনুব্রত এসএসকেএমে গেলেন। কিন্তু তাতেও রেহাই পেলেন না বীরভূমের জেলা সভাপতি। পার্থর মতোই তাঁকেও সাধারণ মানুষের ক্ষোভের শিকার হতে হল।

সূত্রের খবর, ফিশ্চুলার সমস্যা বেড়েছে তাঁর।তাছাড়া, শ্বাসকষ্ট এবং বুকের ব্যথার সমস্যা রয়েছে। তার চিকিৎসার জন্যই সোমবার এসএসকেএমে এসেছিলেন তিনি। এদিকে একেই দিনে সিবিআইয়ের তলব করেছে তাঁকে। তাই রবিবারই তাঁর আইনজীবী মেল করে সিবিআই আধিকারিকদের জানিয়ে দিয়েছিলেন, এসএসকেএম হসপিটাল দাদার চিকিৎসার জন্য একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছিলেন। সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে। সোমবার আবারও স্বাস্থ্য পরীক্ষার দিন রয়েছে তার ফলে সোমবার দাদাকে এসএসকেএম এ নিয়ে যেতে হবে। হাজিরা দেওয়া তাঁর পক্ষে সম্ভব না।

আরও পড়ুন:  Kolkata Municipality: ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে কলকাতা পৌরসভার বিশেষ অভিযান
আরও পড়ুন:  Alipur Zoo: জন্মদিনের অনেক শুভেচ্ছা আলিপুর চিড়িয়াখানা

এদিকে, কেষ্টকে হসপিটালে নিয়ে আসতেই দেখা মিলল অন্য দৃশ্য। তাঁর জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছিল এসএসকেএমে ২১৬ নম্বর কেবিন। হসপিটালে তাঁকে দেখছেন দীপ্তেন্দ্র সরকার, সরোজ মণ্ডল, সৌমিত্র ঘোষ, রাজেশ প্রামাণিক ও সোমনাথ কুণ্ডুর মতো চিকিৎসকরা। অনুব্রতর সমস্ত পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন ,’ এই মুহূর্তে ভর্তি নেওয়ার প্রয়োজন নেই তাঁকে। অনুব্রতর প্রায় সব সমস্যাই ক্রনিক অসুখ। ‘
কিন্তু পরীক্ষানিরীক্ষা করে উডবার্ন ওয়ার্ড থেকে বেরিয়ে আসার সময় কেষ্টর উদ্দেশ্যে ‘গরুচোর’ স্লোগান ওঠে হাসপাতাল চত্বর। তারপরে হইচইয়ের মধ্যেই তড়িঘড়ি গাড়িতে উঠে পড়েন অনুব্রত।

উল্লেখ্য, তিনি হাজিরা দিতে পারবেন না জানানোর পরেও সিবিআই স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, সোমবার এসএসকেএম থেকে বেরিয়ে নিজাম প্যালেসে আস্তে হবে অনুব্রতকে। যদিও হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে তিনি চিনার পার্কে তাঁর ফ্ল্যাটে গিয়েছেন বলে সূত্রের খবর।

আরও পড়ুন:  South Africa: এই ট্রেনে পরিষেবা করলে মিলবে না গন্তব্যে যাওয়ার সুবিধা, কিন্তু চাইলে উঠতেই পারেন

Featured article

%d bloggers like this: