28 C
Kolkata

BJP: বদলাতে পারে বিজেপির কার্যালয়

নিজস্ব প্রতিবেদন: শীগ্রই বদলাতে পারে বিজেপির ঠাঁই। আগামী নির্বাচনের আগেই রাজ্য দপ্তরের পুরোনো ঠিকানা বদল হতে পারে। জানা গিয়েছে ,৬ নম্বর মুরলীধর সেনের লেনে পুরনো বাড়িতে জায়গার অভাব রয়েছে। বেশ কিছু দিন আগে থেকেই নতুন বাড়ি খোঁজার কাজ শুরু হয়েছে। তবে দলের তরফ থেকে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি। সূত্রের খবর ,বিধানসভা ভোটের আগে হেস্টিংসের ঝাঁ চকচকে বিল্ডিংয়ের চারটি ফ্লোর নিয়েছিল বিজেপি। সেখানে আপাতত চলছিল সমস্ত কাজকর্ম। তবে নির্বাচনে ভরাডুবির পর হেস্টিংস ছেড়ে ফের মুরলীধর সেন লেনে ফিরেছে বিজেপির সদর কার্যালয়। মোট দুটি বিল্ডিং রয়েছে সেখানে। তাতে রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার ,বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী দিলীপ ঘোষ ও অমিতাভ চক্রবর্তীর ঘর রয়েছে। তাছাড়া বেশ কয়েকটি ঘর রয়েছে সেখানে দলের গুরুত্বপূর্ণ কাজ হয়।বর্তমানে দলের লোক সংখ্যা বেড়েছে। মোর্চা, সেলের জন্যও আলাদা আলাদা ঘর দরকার। কিন্তু বর্তমানে মুরলীধর সেন লেনের রাজ্যদপ্তরে জায়গার অভাব রয়েছে। অন্যদিকে ইঁদুরেরও দৌরাত্মে নষ্ট হচ্ছে প্রয়োজনীয় নথি। তাই রাজ্য দপ্তর অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। উত্তর কলকাতার দিকে জেলা বিজেপির কার্যালয় হতে পারে।আগেও বাড়ি দেখে হয়েছিল কিন্তু আইনি জটিলতার কারণে সেইবারের মতো আটকে যায় কাজ। তবে আবার জমি ও বাড়ি দুটোই কেনা হতে পারে। দলের অনেক পুরোনো কর্মীকে ছাঁটাই করেছিল বিজেপি। আবার করা হচ্ছে কার্যালয় বদল। তাহলে কি নির্বাচনে নিজেদের জায়গা শক্ত করতে দল এবং দলের কর্মপদ্ধতিতে পুনর্গঠন করতে চাইছে বিজেপি। অর্থাৎ পুরোনোকে বর্জন করে নতুন পথে পা বাড়াচ্ছে গেরুয়া শিবির।

আরও পড়ুন:  Alipurduar: ফের প্রশ্নের মুখে হাসপাতাল নার্সদের পরিষেবা
আরও পড়ুন:  Madhumita Sarcar: রয়েল ব্লু ফিনফিনের শাড়ির ফাঁক থেকে সুস্পষ্ট ক্লিভেজ ঝড় তুললেন মধুমিতা

অন্যদিকে, কিছুমাস আগে উদ্বোধন হয়েছে নতুন তৃণমূল ভবনের। ২০০২ সালের ২০মে বাইপাসের পাশে তৃণমূল ভবন তৈরি হয়েছিল। তখন দল ছোট ছিল। বর্তমানে লোক সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন ভবন তৈরী হয় বাইপাসের ধারে। সেই ভবনে রয়েছে সংগঠনের পদাধিকারীদের জন্য থাকবে আলাদা ঘর। নতুনভাবে তৈরি হলে তৃণমূল ভবনে রয়েছে শাখা সংগঠনের প্রধানদের ঘর। এখানে বসে কর্মীদের সঙ্গে সংগঠনের বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করবেন শীর্ষ নেতৃত্ব।পাঁচতলার এই নতুন বাড়িটি বেশ সুসজ্জিত এবং গেটের মুখে রয়েছে শহিদ বেদি। হালকা ও গাঢ় সবুজ রং করা হয়েছে বিল্ডিংয়ের বাইরের দেওয়ালে।প্রায় ১৫ হাজার বর্গফুটের একটি বাড়িতে গোটা ভবনটি। গ্রাউন্ড ফ্লোরে একটি বসবার ঘর রয়েছে। নীচতলায় একটি রিসেপশন রুমও করা হয়েছে। তৃণমূল নেত্রীর জন্য রয়েছে একটি ঘর। এছাড়াও বিভিন্ন ফ্লোরে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের জন্য আলাদা বসার ঘরও রয়েছে।

আরও পড়ুন:  Hush Hush:রহস্যের জালে ছয় নায়িকা

Featured article

%d bloggers like this: