27 C
Kolkata

Kolkata tala Bridge : পুজোর আগেই শুরু হচ্ছে নতুন টালা ব্রিজ

নিজস্ব প্রতিবেদন : পুজোর আগেই চালু হয়ে যাচ্ছে উত্তর কলকাতার প্রধান রাস্তা টালা ব্রিজ। উত্তর কলকাতা ও উত্তর শহরতলির ‘লাইফ লাইন’ হল এই টালা ব্রিজ। ৭৫০ মিটার দীর্ঘ সেতুটি তৈরী করতে খরচ হয়েছে ৪৬৮ কোটি টাকা। সেতুটি মাঝেরহাট ধাঁচে কেবল রেল ওভার ব্রিজ হিসেবে আত্ম প্রকাশ করছে। আগে এই সেতুটি ছিল ৩ লেনের। কিন্তু নতুন নতুন ব্রিজ হচ্ছে ৪ ল্যানের। শুধু তাই নয় , বীজের দুপাশে থাকবে ফুটপাথ। এর মধ্যে ৪০ মিটার অংশ কেবলের উপরেই শূন্যে ঝুলবে।

মাঝেরহাট ভেঙ্গে পড়ার পর , মুখ্যমন্ত্রীর এদেশে গোটা কলকাতা জুড়েই সমস্ত সেতু পরীক্ষা করা হয়। আর সেখানেই জানা যায় ,টালা ব্রিজের অবস্থা খুবই বিপজ্জনক। ২০২০ সালের ৩১ জানুয়ারী রাট থেকে শুরু হয়েছিল পুরান ব্রিজ ভাঙার কাজ। ওই বছরই ২২ ডিসেম্বর নতুন নকশা তৈরী হয়ে আসে এবং ২০২১ সালে শুরু হয় সেই ব্রিজ বানানোর কাজ। সেই কাজের ৭০শতাংশ আপাতত সম্পূর্ণ। উল্লেখ্য ১৯৬৩ সালে নির্মিত ব্রিজটি মাত্র ১৫০ টন ভারবহন করতে পারত। এখন সেতুটির ভারবহন সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়ে হচ্ছে ৩৮৫ টন। ৭৫০ মিটার দীর্ঘ সেতুর মাঝে শ্যামবাজার, চিৎপুর, সিঁথির দিকে নামার সিঁড়ির ব্যবস্থা থাকছে। রেলের দিকে কোনো পিলার থাকছেনা। পুরোটাই কেবলে ঝুলবে। উল্লেখ্য শ্যামবাজার , সিঁথির দিকে সেতু নির্মাণ শুরু হলেও রেললাইনের ওপরের অংশের সাথে জুড়ে যায়নি। জুড়ে যাবার পরে , রেলের সেফটি কমিশনার পরিদর্শন করবেন। আর কেবলমাত্র তার পরেই ব্রিজ চালুর অনুমতি পাওয়া যেতে পারে।

আরও পড়ুন:  Manik Bhatterjee : একদিনের স্বস্তি মানিকের
আরও পড়ুন:  Bjp : নিহত বিজেপি কার্যকর্তাদের নামে তর্পণ করলেন রাজর্ষি

কলকাতা পুরসভার ডেপুটি তথা কাশিপুর – বেলগাছিয়ার বিধায়ক হলেন অতীন ঘোষ। তিনি আশাবাদী পুজোর আগেই এ ব্রিজ সর্বসাধারণের জন্য উদ্বোধন করে দিতে পারবেন মুখ্যমন্ত্রী। শনিবার এই বিষয়ে তিনি বলেন,” করোনার জেরে ব্রিজ বানানোর গতি শ্লথ হয়ে গিয়েছিল। এখন পূর্ত দপ্তরের পাশাপাশি পুরসভাও নির্মাণ দ্রুত সম্পূর্ণ করতে নজরদারি চালাচ্ছে। তবে এখন যে গতিতে দিন রাত্রি কাজ চলছে তাতে পুজোর আগেই সাধারণের জন্য ব্রিজটি মুখ্যমন্ত্রী উদ্বোধন করতে পারেন। “

এদিন সেতুর নিচ ও উপরে ইঞ্জিনিয়ারদের নিয়ে পায়ে হেঁটে দেখেন করেন ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ ও বরো চেয়ারম্যান তরুণ সাহা। মেয়র জানান, রাস্তা ও দু একটি নির্মাণে প্রশ্ন উঠেছে ইঞ্জিনিয়ারদের তরফে। তাই সিদ্ধান্ত হয়েছে এই বিষয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞদের মতামত নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন:  Kolkata Fire: গার্ডেনরিচে বাসে আগুন
আরও পড়ুন:  Durga Puja: ২০২২-এর ষষ্ঠীর দিনেই জেনে নিন ২০২৩-এর নির্ঘণ্ট

পূর্ত দপ্তরের শীর্ষ ইঞ্জিনিয়ারদের দাবি, সেতু টি চালু হলেই গতি বাড়বে উত্তর কলকাতার পাশাপাশি উত্তর ২৪ পরগনা, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ অংশে।

Featured article

%d bloggers like this: