28 C
Kolkata

PM Modi Vs Mamata Banerjee : ক্যানসার হাসপাতালের ভারচুয়াল অনুষ্ঠানে মোদিকে খোঁচা মমতার

নিজস্ব সংবাদদাতা : আজ ভার্চুয়াল মাধ্যমে রিমোটের বোতাম টিপে কলকাতায় চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল ক্যান্সার ইনস্টিটিউটের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডবীয়।সেই সঙ্গে ছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক। ছিলেন শান্তনু ঠাকুর। চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল ক্যান্সার ইনস্টিটিউটের নতুন ক্যাম্পাসে থাকছে ৪৬০টি বেড। ১০টা অত্যাধুনিক অপারেশন থিয়েটার।

রয়েছে ১২৮টি সিটি স্ক্যান যন্ত্র।কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, ক্যানসার চিকিৎসার অত্যাধুনিক সব সুযোগসুবিধা থাকবে ওই হাসপাতালে। থাকবে নিউক্লিয়ার মেডিসিনের সুবিধা, রোগীর আত্মীয়দের থাকার জন্য অতিথিনিবাস এবং চিকিৎসকদের আবাসন। প্রায় ১০০০ কোটি টাকা খরচ করে তৈরি হয়েছে ওই দ্বিতীয় ক্যাম্পাস।এশিয়ার প্রথম সারির ক্যান্সার বিশেষজ্ঞরা এই হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত। হাসপাতাল পরিচালনার দায়িত্ব কেন্দ্র-রাজ্য উভয়েরই। উদ্বোধনের পর মোদি বলেন, ‘‘এই হাসপাতাল বাংলার অনেক নাগরিকের সুবিধা করবে।

আরও পড়ুন:  Arpita Mukherjee : রাজসাক্ষী হতে চান অর্পিতা ? আবেদন ইডির কাছে !
আরও পড়ুন:  Breaking : রাজপথ থেকে উদ্ধার ৫৫ কোটির সোনা

শুধু কলকাতা নয়, আশপাশের জেলাগুলিও উপকৃত হবে। বিশেষ করে দুঃস্থদের ক্যানসার চিকিৎসায় এই হাসপাতাল বড় ভূমিকা নেবে। বর্ধমান এবং মুর্শিদাবাদেও ক্যানসারের চিকিৎসা হবে।’’উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মমতা বলেন, ‘‘আমি এখানে উপস্থিত থেকেছি প্রধানমন্ত্রীর জন্য। কারণ বাংলার একটি হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের ভার্চুয়াল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী আমাকে দু’বার ফোন করে ছিলেন। বাংলার উন্নয়নের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী আগ্রহ দেখিয়েছেন, এ জন্য ধন্যবাদ। ’’

এর পরই মমতা বলেন, ‘‘কিন্তু আমি এখানে উল্লেখ করতে চাইব, এই ক্যাম্পাসের উদ্বোধন আমরা আগেই করে দিয়েছি। কারণ কোভিডের প্রথম তরঙ্গের সময় আমাদের বেশি স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর দরকার হয়েছিল। তখনই এক দিন আমি নিউ টাউনের এই হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাস দেখি এবং ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিই। আমরা এখানে সেফ হোম তৈরি করি। এই ভবনটি আমাদের খুব কাজে এসেছে।’ মুখ্যমন্ত্রীর দাবি , ‘ক্যাম্পাস তৈরিতে যা খরচ হয়েছে, তার ২৫ শতাংশ রাজ্য দিয়েছে। হাসপাতালের জন্য ১১ একর জমিও রাজ্য দিয়েছে।’

আরও পড়ুন:  Alipurduar: ফের প্রশ্নের মুখে হাসপাতাল নার্সদের পরিষেবা
আরও পড়ুন:  Arpita Mukherjee : রাজসাক্ষী হতে চান অর্পিতা ? আবেদন ইডির কাছে !

Related posts:

Featured article

%d bloggers like this: