28 C
Kolkata

Partha Chatterjee: ED-র নজরে এবার পার্থর মেয়ে-জামাই, ই-মেল করে কলকাতায় তলব

নিজস্ব প্রতিবেদন: এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য-রাজনীতি। গ্রেপ্তার হয়েছেন রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং মন্ত্রী ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে কোটি কোটি টাকা। কিন্তু, এই টাকা কার? তার সুদুত্তর এখনও মেলেনি। এবার দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন মন্ত্রীর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মেয়ে সোহিনী ভট্টাচার্য এবং জামাই কল্যাণময় ভট্টাচার্যর সঙ্গে কথা বলতে চায় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। এই মর্মে ভট্টাচার্য দম্পতিকে ইমেইল করে কলকাতায় তলব করা হয়েছে। যদিও সোহিনী কিংবা কল্যাণময়ের তরফে এই বিষয়ে এখনও কিছু বলা হয়নি। এদিকে, আজ শুক্রবার তাঁদের দুজনকে আদালতে তুলবে ইডি। গতকালই দুজনকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হয়েছে।

এসএসসি দুর্নীতির তদন্তে জেরা চলছে পার্থ-অর্পিতাকে। দুর্নীতির শিকড়ে পৌঁছতে চাইছে ইডি। গত কয়েকদিনে রাজ্যে চাকরি দুর্নীতির তদন্তে নেমে একাধিক ঠিকানায় হানা দিয়ে মিলেছে কুবরের ধন। পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে এখনও পর্যন্ত নগদ প্রায় ৫০ কোটি টাকা উদ্ধার করেছে ইডি। ব্যাঙ্কে দু’জনের ফ্রিজড হয়ে যাওয়া অ্যাকাউন্ট থেকেও ৮ কোটি টাকার খোঁজ মিলেছে। এছাড়াও অর্পিতার টালিগঞ্জ ও বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাট থেকে তাল-তাল সোনা, মুঠো-মুঠো রুপো, হীরের গয়না উদ্ধার হয়েছে। একগুচ্ছ ফ্ল্যাট-জমির দলিলও মিলেছে।

আরও পড়ুন:  Breaking : রাজপথ থেকে উদ্ধার ৫৫ কোটির সোনা
আরও পড়ুন:  Howrah: নবরূপে হাওড়া ব্রিজ

অন্যদিকে, পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের নামে অন্তত ৩১টি এলআইসি-র পলিসি ছিল। আর প্রত্যেকটিতে নমিনি ছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ইডি-র রিমান্ড কপি থেকে এই সমস্ত তথ্য পাওয়া গেছে। এটিও প্রকাশ করা হয়েছে যে পার্থ এবং অর্পিতা দুজনেই এপিএ ইউটিলিটি কোম্পানির অংশীদার ছিলেন। নগদ টাকা দিয়ে কিছু ফ্ল্যাটও কিনেছিলেন অর্পিতা। এখন কার টাকা ছিল, অর্পিতা কোথা থেকে এই টাকা পেয়েছিল, তা খতিয়ে দেখছে ইডি। অর্পিতা মুখোপাধ্যায় এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায় ৫ অগাস্ট পর্যন্ত ইডি হেফাজতে থাকবেন।

বৃহস্পতিবার কলকাতার পন্ডিতিয়ার অভিজাত ফ্ল্যাটে দরজা ভেঙে ভিতরে ইডি আধিকারিকরা। এমনটাই জানা গিয়েছে সূত্র মারফত। মঙ্গলবারও ওই ফ্ল্যাটে এসেছিলেন তদন্তকারীরা। কিন্তু দরজা খুলতে পারা যায়নি। শেষে একটি নকল চাবি তৈরি করে, এমন একজনকে নিয়ে আসা হয়েছিল। অনেক চেষ্টাতেও শেষে তিনি দরজা খুলতে পারেননি। বিষয়টি রবীন্দ্র সরোবর থানায় পুলিশকে জানিয়ে ফিরে যায় ইডি। বৃহস্পতিবার ফের ওই ফ্ল্যাটে আসেন ইডি আধিকারিকরা। সঙ্গে ছিল স্থানীয় থানার পুলিশ। দরজা ভেঙেই ওই ফ্ল্যাটে প্রবেশ করেন তদন্তকারীরা।

আরও পড়ুন:  Accident: জাতীয় সড়কে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, নিহত একই পরিবারের ৩ সদস্য

Featured article

%d bloggers like this: