18 C
Kolkata

kolkata: বউবাজারের স্যাঁকরাপাড়ায় জল সংকটে বাসিন্দারা

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাড়ি বিপর্যয়ের মধ্যেই এবার জল সংকটে ভুগছে বউবাজারের বাসিন্দারা। স্যাঁকরা পাড়া লেনের মাটির তলায় পানীয় জলের ফেটে শুরু হয় বিপত্তি। জানা যায় , মেট্রোর কাজের জন্য ফেটেছে জলের লাইন। যার ফলে জলসঙ্কট দেখা দিচ্ছে। তবে পুরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয় দ্রুত এই সমস্যার সমাধান করা হবে। গত শনিবার থেকে স্যাঁকরাপাড়া লেনের বেশ কয়েকটি বাড়ি জল অভাবে ভুগছিল।আপাতত পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য পুরসভার তরফ থেকে পানীয় জলের ট্যাঙ্কের ব্যবস্থা করা হয়েছে। কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে সোমবার মেরামতি কাজ শুরু করা হয়েছে।

স্থানীয় কাউন্সিলর বিশ্বরূপ দে অভিযোগ করেন , মেট্রোর কাজের জন্য বেশ কিছু সমস্যা হচ্ছে। সেখানকার বাসিন্দারা সমস্যা নিয়ে বার বার তাঁর দ্বারস্থ হচ্ছেন। সিমেন্ট মেশানো বর্জ্যে বুজে যাচ্ছে নর্দমাগুলি। যার ফলে জল নিকাশি সংক্রান্ত সমস্যা ধরা পড়ছে। তাছাড়া রাস্তায় নানা বর্জ্য পড়েও বিপত্তি দেখা দিচ্ছে। জল সংকটের বিষয়ে পুরসভা জানিয়েছে,মঙ্গলবার স্যাঁকরাপাড়া লেনে পানীয় জল পরিষেবা স্বাভাবিক হয়ে যাবে। বাসিন্দাদের আর কোনও সমস্যায় পড়তে হবে না।

আরও পড়ুন:  Brazil : কোয়ার্টারে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ কারা? কবে মাঠে নামবে সেলেকাওরা?

অন্যদিকে,বউবাজারের দূর্গাপিটুরি লেনে বাড়ি ভাঙার কাজ হয়েছে। সোমবার সকাল আসেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা।খতিয়ে দেখে নির্দেশ দেওয়া হয় ১৬ নম্বর এবং ১৬/১ নম্বর বাড়ির একাংশ ভাঙার। সিএসসি আধিকারিকরাও এসে পৌঁছান। বাড়িগুলি ভাঙার পূর্বে বিদ্যুতের তার সরানো হয়। কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে পরে জলের লাইনগুলিও অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হবে। কে এম আর সি এলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল , যদি বাড়িগুলির আংশিক অংশ ভেঙে দেওয়ার পর বাকি অংশ নিরাপদ থাকে, সেই অংশটি ভাঙা হবে না। কিন্তু যদি সেই অংশ বিপজ্জনক হয় তবে পুরো বাড়িটিই ভেঙে ফেলা হবে। তবে ওই এলাকার বাকি বাড়িগুলির সম্পর্কে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। কলকাতা পুরসভার সঙ্গে আলোচনা করে বাকি সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন:  Govt Bus from Sundarban: মাত্র ১০০ টাকায় সুন্দরবন

Featured article

%d bloggers like this: