19 C
Kolkata

উর্বি যাত্রা শুরু করল শিয়ালদহ থেকে বউবাজারের উদ্দেশে

নিজস্ব সংবাদদাতা : উর্বি মানে পৃথিবী। ইঞ্জিনিয়ারদের কথায় এই ‘পৃথিবী’ মানে হল মাটি। তাই মাটির নীচের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক তৈরি করতে পেরেছে টিবিএম উর্বি। আর তাকে ভরসা করেই পরের ধাপে এগোতে চাইছে মেট্রো। গত অক্টোবর মাসে শুভ মুহূর্ত বেছে নিয়ে শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশনে মাটি ফুঁড়ে বেরিয়েছে টানেল বোরিং মেশিন উর্বি।

নির্মাণকারী সংস্থা সূত্রে খবর, চলতি বছরের শুরুতেই টানেল বোরিং মেশিনকে পাঠানো শুরু হল বউবাজারের দিকে। বউবাজারে যেখানে টানেল বোরিং মেশিন চান্ডি আটকে আছে। শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশন থেকে এই জায়গার দূরত্ব হচ্ছে ৮০০ মিটারের কাছাকাছি।

৫ জানুয়ারি শিয়ালদহ থেকে টানেল বোরিং মেশিন সুড়ঙ্গ বানাতে বানাতে বউবাজারের দিকে এগোবো। গত ৩ মাস সময় লেগেছিল এই টানেল বোরিং মেশিনকে খন্ড খন্ড করে বার করায়। তারপর তাকে রিফ্রাবিশ করে নেওয়া হয়। তারপর তার অ্যালাইনমেন্ট ঠিক করে নেওয়া। তারপর তাকে চালনা করা হল। এই কাজ শেষ করে তবেই উর্বি রওনা হল বউবাজারের দিকে সুড়ঙ্গ খুঁড়তে।

আরও পড়ুন:  Fire Kolkata: টেরিটি বাজারে ভয়াবহ আগুন

ধরে নেওয়া হচ্ছে বাংলা নববর্ষের আগে হাওড়া ময়দান থেকে শিয়ালদহ দু’টি টানেল তৈরি হয়ে যাবে। যদিও এই পথে কাজ করতে গিয়ে বেশ সাবধানী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হচ্ছে ইঞ্জিনিয়ারদের।ফের যাতে বউবাজার বিপর্যয় না হয় সে বিষয়ে সাবধানী ভূমিকা পালন করছে কে এম আর সি এল।

নির্মাণকারী সংস্থা আইটিডি সিইএমের চিফ অপারেশন ম্যানেজার রুপক সরকার জানিয়েছেন,”কলকাতার অন্যতম ব্যস্ত এলাকার মধ্যে দিয়ে টানেল নিয়ে যাওয়া হয়েছে ওভাবে । টানেল যেমন হওয়া উচিত ঠিক তেমনটাই হয়েছে। আমরা ওই এলাকার সব বাড়ি সমীক্ষা করেছি। যে সব বাড়ি বিপদজনক তার তালিকা আমাদের কাছে আছে। ফলে অত্যন্ত সাবধানতার সঙ্গে সবদিক ভাবনাচিন্তা করেই আমরা টানেল খোঁড়ার কাজ শুরু করব।”

আরও পড়ুন:  Metro: যাত্রীদের সুবিধার্থে ১৫ মিনিটের বদলে ১২ মিনিট অন্তর চলবে সন্ধ্যার মেট্রো

Featured article

%d bloggers like this: