28 C
Kolkata

WB Cabinet : বড়সড় রদবদল মন্ত্রীসভায়

নিজস্ব প্রতিবেদন : সোমবার দুপুরে নবান্নে মন্ত্রিসভার বৈঠক ছিল। বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন বুধবার মন্ত্রিসভার রদবদল হবে আর সেই মতই বুধবার বাংলার মুখ্যমন্ত্রী রাজভবনে পৌঁছন। ঘড়িতে তখন বিকেল চারটে। তারপরেই শপথ নেওয়া শুরু করলেন বাংলার নতুন আট মন্ত্রী । তাঁদের শপথ বাক্য পাঠ করালেন অস্থায়ী রাজ্যপাল লা গণেশন।

নতুন এই আট মন্ত্রী হলেন, উদয়ন গুহ, তাজমুল হোসেন, পার্থ ভৌমিক, প্রদীপ মজুমদার, স্নেহাশিস চক্রবর্তী, বাবুল সুপ্রিয়, বিপ্লব রায়চৌধুরী এবং সত্যজিৎ বর্মন।যার মধ্যে প্রদীপ মজুমদারকে দেওয়া হয়েছে – পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দায়িত্ব। সেচ ও জলপথের দায়িত্ব পার্থ ভৌমিকের। বাবুল সুপ্রিয় পেয়েছেন তথ্য প্রযুক্তি ও পর্যটন। উদয়ন গুহ-উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন আর স্নেহাশিস চক্রবর্তী- পরিবহণ। বীরবাহা হাঁসদা- বন এবং স্বনির্ভর ও বিপ্লব রায়চৌধুরী- মৎস্য বিভাগের দায়িত্ব পেয়েছেন।পরিষদীয় মন্ত্রী হয়েছেন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। যদিও কৃষি দপ্তর আগে থেকেই রয়েছেন তিনি।শশী পাঁজর হাতে নারী ও শিশু কল্যাণ দপ্তর আগে থেকেই ছিল, এবার শিল্পের মতো গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরের দায়িত্ব গেল তাঁর হাতে। বিপ্লব মিত্রর হাতে দেওয়া হয়েছে ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তর। ক্ষুদ্র-মাঝারি শিল্প ও বস্ত্র দফতরের প্রতিমন্ত্রী তাজমুল হোসেন।শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী হলেন সত্যজিৎ বর্মন। রাজ্যপাল লা গণেশনের কাছে ধাপে ধাপে শপথ নেন তাঁরা। রাজনৈতিক মহল মনে করছে ,২০২১ সালে তৃণমূল তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর এটাই সবচেয়ে বড় রদবদল ।

এদিকে, এদিন সকালে কলকাতায় পরিবহণ দপ্তরের এক অনুষ্ঠানে গিয়ে ফিরহাদ হাকিমকে বলতে শোনা গিয়েছিল, “আমি থাকি বা না থাকি, এই পৃথিবী চলবে। কলকাতা চলবে।” ফিরহাদের এই মন্তব্যেকে ঘিরে উঠছিল নানান প্রশ্ন। বেলা গড়িয়া বিকেল হতেই মিলল সেই প্রশ্নের উত্তর। দায়িত্ব থেকে কাটছাঁট করা হয়েছে ফিরহাদ হাকিমকে। হাতবদল হল পরিবহণ এবং আবাসন দপ্তরের। ফিরহাদের উপর থেকে খানিকটা কমিয়ে নেওয়া হল দলের ভার। পাশাপাশি বাবুল, শশী, শোভনদেবে গুরুত্ব বাড়ল মন্ত্রিসভায়। এছাড়াও, প্রাক্তন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়েকে বেআইনি ভাবে নিয়োগ করার অপরাধে, তাঁর বিরুদ্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

সম্প্রতি সাংগঠনিক স্তরে জেলায় জেলায় সভাপতি এবং চেয়ারম্যান রদবদল করা হয়। আর এবার তা করা হয় মন্ত্রিসভায় । উল্লেখ্য, এই ঘটনার পর ঘাসফুল শিবিরের কর্মীরা অনেকটাই চাঙ্গা হয়ে উঠেছেন। এছাড়াও সামনে পঞ্চায়েত ভোট। তাই নতুন সভাপতিদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সব কাজ ফেলে এই পঞ্চায়েত ভোট প্রক্রিয়া শুরু করতে। সূত্রের খবর, দপ্তর পাওয়ার পর কাজ শুরু করবেন নতুন মন্ত্রীরা ।

আরও পড়ুন:  Kolkata: হয়েও হল না পুরো মিছিল, কালীঘাটেই আটকে দেওয়া হল ‘ভারত জোড়ো যাত্রা’

Featured article

%d bloggers like this: