18 C
Kolkata

TMC Group Quarrel, Suspand Youth Leader:- গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জের, বহিষ্কার যুব নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদন:- বেহালার চড়কতলা মাঠ কার দখলে থাকবে তা নিয়ে দফায় দফায় অশান্তি। তৃণমূল দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বচসা, হাতাহাতি এবং সংঘর্ষ। ব্যাপক বোমাবাজি করা হয় এলাকায়। ভাঙচুর করা হয় পার্টি অফিস। মূলত বৃহস্পতিবার তার জের অব্যাহত। বেহালার বিধায়ক রত্না চট্টোপাধ্যায় এর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ তৃণমূলের একাংশের। আর এর জেরে কঠোর সিদ্ধান্ত নিল তৃণমূল নেতৃত্ব। দল থেকে বহিষ্কার করা হল যুব তৃণমূল সভাপতি বাপন বন্দ্যোপাধ্যায় কে। বৃহস্পতিবার সকালেই অভিযুক্ত বাপন বন্দ্যোপাধ্যায় কে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয় তৃণমূল। অন্যদিকে বিধায়কের সাথে ফোনে বিস্তারিত তথ্য জানতে চেয়ে কথা বলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ঘটনার সূত্রপাত মঙ্গলবার। চড়কতলা মাঠের দখল নিয়ে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ব্যাপক অশান্তি। চলে বোমাবাজি। যদিও অশান্তির পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত যুব তৃণমূল সভাপতি বাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও ঘটনার পরেই বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই একই ঘটনা নিয়ে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। তৃণমূল বিধায়ক রত্না চট্টোপাধ্যায় এর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন অভিযুক্তের পরিবারের সদস্যরা। যদিও ঘটনার গুরুত্ব আন্দাজ করতে পেরেই বিধায়কের সাথে ফোনে বিস্তারিত ঘটনা নিয়ে কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যায় এর যথাযথ শাস্তি হবে বলেই বিধায়ককে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি এমনটাই সূত্রের খবর। এমনকি এলাকার শান্তি বজায় রাখতে স্থানীয় প্রশাসনকে পদক্ষেপ গ্রহণ করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী এমনটাও জানা যাচ্ছে।

আরও পড়ুন:  Kiara Advani: নিজের প্রেম নিয়ে মুখ খুললেন কিয়ারা

বৃহস্পতিবার সকালে বিধায়ক রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ি এবং কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন দলের একাংশ। বিধায়ক কে জিজ্ঞাসা করা হয় কেন বাপন বন্দ্যোপাধ্যায় কে অভিযুক্ত হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে ? কেনই বা তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হল। যদিও পরে বিধায়ক রত্না চট্টোপাধ্যায় জানান যারা তার অফিসে বিক্ষোভ দেখালেন তারা অভিযুক্তের পরিবারের সদস্য। তিনি বলেন বিষয়টি তদন্তের আওতায় রয়েছে। প্রকৃত দোষী শাস্তি পাবে।

Featured article

%d bloggers like this: