28 C
Kolkata

Saibal Bhattacharya-Tollywood: অবসাদের কারণে ফের আত্মহত্যার চেষ্টা টলিউডে !

নিজস্ব প্রতিবেদন : ছোটপর্দার বেশ জনপ্রিয় অভিনেতা শৈবাল ভটাচার্য্য। কাকা বাবা আবার কখনও ভিলেনের চরিত্রে পর্দা কাঁপিয়েছেন তিনি। সম্প্রতি তাকে দেখা গিয়েছে ‘উড়ান তুবড়ি’ ধারাবাহিকে। পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করলেও মানুষদের মনে দাগ কাটতে পারত তাঁর অভিনয় ক্ষমতা। তবে হঠাৎ সব কিছু ভুলে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন অভিনেতা ! জানা যাচ্ছে কসবার কাছে তাঁর নিজের ফ্ল্যাট থেকে তাঁকে উদ্ধার করা হয় রক্তাক্ত ভাবে। তবে হঠাৎ কেন এই পথ বেঁচে নিলেন অভিনেতা ! কাজ যে ছিল না তেমনটা নয়। বেশ ভালোভাবেই কাজ করে যাচ্ছিলেন শৈবাল। পুলিশদের প্রাথমিক তদন্তে আত্মহত্যার কারণ হিসাবে জানা যাচ্ছে যে অভিনেতা কাজ সংক্রান্ত ডিপ্রেশনে ভুগছিলেন। শুধু তাই নয় তিনি নাকি ধীরে ধীরে মাদকেও আসক্ত হয়ে পড়েছিলেন।

চলতি বছরে পর পর বেশ কয়েকজন টেলি অভিনেত্রীর মৃত্যু নিয়ে বারবারই প্রশ্নের আঙ্গুল উঠেছে টলিউড ইন্ডাস্ট্রির দিকে।এবার আরও এক টেলি অভিনেতার আত্মহত্যার চেষ্টা নিয়ে দুশ্চিন্তায় টলি-পাড়া। শুধুই কি কাজ কম ভালো কাজ নেই সেই থেকেই ডিপ্রেসন এবং এখন থেকেই এমন পদক্ষেপ নিচ্ছেন অভিনেতা অভিনেত্রীরা নাকি এর পিছনে রয়েছে আরও বড় কোনো রহস্য ! সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত পুলিশ। জানা গেছে অভিনেতার শরীরের নানা জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। শৈবালের মাথায়, পেটে এবং পায়ে ধারালো অস্ত্রের ক্ষত। আর তাতেই প্রচুর পরিমান রক্তক্ষরণ হয়েছে। শুধু যে শোনা যাচ্ছে না তাই নয়।

আরও পড়ুন:  Alia Bhatt: গর্ভস্থ অবস্থাতেই বাজিমাত আলিয়ার!

নিজেকে আঘাত করার পরে তিনি নিজেই একটি ভিডিও স্যারকরেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়, যেখানে দেখা যাচ্ছে মাথায় আঘাতের চিহ্ন, পুরো শরীর ভাসছে রক্তে, মুখ সিগারেট। কথা জড়িয়ে যাচ্ছে তবু কথা বলার কি প্রবল ইচ্ছা। জড়ানো স্বরেই বললেন-” আমি অপারক হলাম আইন নিজের হাতে তুলে নিতে, বাধ্য হলাম।এর জন্যে আমার স্ত্রী, শাশুড়ি এবং আমার……….” এখানেই শেষ হয়ে যায় ভিডিওটি। সোশ্যাল মিডিয়া দেখলে বোঝা যাবে ভিডিওটি তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন ৮ অগাস্ট দুপুরের দিকে। কিন্তু তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ৮ অগাস্ট রাত্রে। চিত্তরঞ্জন হাসপাতালে আপাতত চিকিৎসাধীন অভিনেতা। বেশ কয়েকদিন আগে সাইবার ক্রাইমে একটি কমপ্লেন করেন। সেখানেও তিনি জানান তিনি অর্থনৈতিক সমস্যায় রয়েছেন। শোনা যাচ্ছে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ নিয়ে চিকিৎসকরা এখনো বেশ চিন্তায় রয়েছেন। আপাতত অভিনেতাকে ঘুমের ওষুধ দিয়ে রাখা হয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে। তবে বারবারই এই প্রশ্ন উঠে আসছে সকলের মনে যে শুধুই কি অবসাদ নাকি এর পিছনে রয়েছে অন্য কোনো কারণ, তারই উত্তর খুঁজছে পুলিশ।

আরও পড়ুন:  Mahishasur Marddini: মহালয়ার পরেই 'মহিষাসুরমর্দিনী' ঋতুপর্ণা

Featured article

%d bloggers like this: