22 C
Kolkata

Short Film: একা মানেই একাকিত্ব নয়

নিজস্ব প্রতিবেদন : একা থাকতেও অনেকের ভালো লাগে। আবার অনেকের মনে জমে থাকে অভিমান। ছেলে মেয়েকে বিদেশে পাঠিয়ে দীর্ঘ কয়েক বছর অপেক্ষার পর, ভিডিও কল যখন একমাত্র উপায় ছেলে মেয়ের সঙ্গে দেখা করবার তখনই জমতে থাকে অভিমানের মেঘ। আবার অনেকে দেশের বাড়ি জমি বিক্রি করে মা-বাবাকে বৃদ্ধাশ্রমে পাঠিয়ে পাড়ি জামান বিদেশের মাটিতে। চোখের কোনায় জল নিয়ে দিনের পর দিন অপেক্ষা করে যায় বৃদ্ধ মা বাবা। এবার এই নিয়েই স্বল্পদৈর্ঘ্যের একটি সিনেমা বানালেন পরিচালকের দেবেশ চট্টোপাধ্যায়। অল্প সময় অনেক কথা বুঝিয়ে দেয় এই সিনেমা।

পরিচালকের কথায়, বৃদ্ধাশ্রমে যারা থাকেন তাদের পরিবার নেই, তাদের মনে শুধুই জমে আছে একরাশ অভিমান, এই কথা যে কতটা ভুল তা তিনি শান্তিনিকেতনে গিয়ে বুঝিয়েছিলেন। সেখানেও একটা বৃদ্ধাশ্রমে সাক্ষী ছিলেন পরিচালক। সেখানে ঢাকা প্রত্যেকটা মানুষের ছেলেমেয়েরা বিদেশে থাকে তারাও এই বৃদ্ধ বয়সে এসে একা হয়ে পড়েছেন। তবে তারা পরিবার হারা হননি। একটা বিশাল পরিবারের আর এক সদস্য হয়ে উঠেছেন তারা। ব্যস্ততায় ভরে উঠেছে তাদের বৃদ্ধ অবসর সময়ে গুলি।

আরও পড়ুন:  Aindrila Sharma: সব্যসাচীর হাত ছাড়লো ঐন্দ্রিলা, শোখে বিহ্বল পরিবার

আর সেরকমই একটা গল্প নিয়ে তৈরি করেছেন ‘ইয়ে’। যেসব বাবা মা এদের তাদের ছেলেমেয়েদের সঙ্গে দেখা হয় ভিডিও কলের মাধ্যমে তাদেরকে উদ্দেশ্য করেই সিনেমার প্রথম অংশ শুরু হয়েছে। তবে ছেলের জন্য অপেক্ষা ছেলের ভিডিও কলের আশায় সারাদিন পার করে দেয়া বৃদ্ধা মা একদিন ছোটদের নাচ শেখাতে শুরু করে। আর তারপরেই, বদলে যায় সমস্ত ছবিটা। যে ছেলের জন্য এতদিন অপেক্ষা করতেন মা, সেই মাইরি, এখন আর সময় হয় না ব্যস্ত ছেলের ফোন ধরবার। কারণ তিনি যে এখন নাচের শিক্ষিকা। বৃদ্ধ মায়ের ভূমিকায় অভিনয় থিয়েটার অভিনেত্রী ভদ্রা বসু। পরিচালক দেবেশ চট্টোপাধ্যায়ের এই ভাবনাকে কুর্নিশ জানাই।

Featured article

%d bloggers like this: