18 C
Kolkata

Bjp Strike:- বনধকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র চেহারা নিল মালদার গাজোল, ব্যাপক সংঘর্ষ তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে

নিজস্ব প্রতিবেদন:- পৌরসভার নির্বাচনের পর রাজ্যের চারিদিকে পৌরসভা নির্বাচনে অশান্তির অভিযোগ তুলে সাংবাদিক সম্মেলন করে সোমবার বাংলা বনধের ডাক দেয় বঙ্গ বিজেপি।

বঙ্গ বিজেপির পক্ষ থেকে সারা বাংলা বনধের ডাক দেওয়া হলেও গতকালই নবান্ন সূত্রে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় সমস্ত সরকারি কর্মচারীদের অফিসে আসতে হবে। রাজ্য তৃণমূল নেতৃত্বের পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষের পাশে থেকে সারাদিন রাস্তায় থাকার বার্তা দেওয়া হয়।

রাজ্য বিজেপির নির্দেশ অনুযায়ী সোমবার সকাল থেকেই পথে নামেন বিজেপি কর্মীরা। রাজ্যের প্রায় প্রতিটি জায়গাতেই বনধের সমর্থনে পথে নামেন বিজেপি কর্মীরা। ঠিক তেমনি তৃণমূলের রাজ্য নেতৃত্তের নির্দেশ মেনে পথে নেমেছিল তৃণমূল কর্মীরা।বনধ কে কেন্দ্র করে সারা রাজ্য জুড়ে মূলত অশান্তির ছবি ধরা পরল।

বনধকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় রণক্ষেত্র চেহারা নিল মালদা জেলার গাজোল ব্লক। এদিন সকালে কদুবাড়ি মোড় এলাকায় ৩৪ নং জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন বিজেপি কর্মীরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। অবরোধ তুলে নিতে বলা হয় অবরোধকারীদের। কিন্তু অবরোধ চালিয়ে যান বিজেপি কর্মীরা। এরপর ঘটনাস্থলে পৌঁছায় তৃনমূলের কর্মী-সমর্থকরা। অবরোধ তোলা নিয়ে বিজেপি সাথে বচসা শুরু হয় তৃণমূল কর্মীদের। এক সময় হাতাহাতির রূপ নেয় বনধকে কেন্দ্র করে। পরিস্থিতি সামাল দিতে দুই সংগঠনের নেতৃত্ব এবং কর্মী-সমর্থককে সরিয়ে দিতে বাধ্য হয় পুলিশ। ঘটনাস্থলে ছুটে আসে বিজেপি বিধায়ক চিনময় দেব বর্মন। এরপর পুলিশের সাথে বচসা বেধে যায় বিজেপি বিধায়কের। অবরোধের রাস্তা ছেড়ে পথ নেন মিছিলের। কদুবাড়ি এলাকা থেকে মিছিল শুরু করে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। বিদ্রোহী মোড় এলাকায় পিকেটিং করার চেষ্টা করা হলে খন্ড যুদ্ধ বেধে যায় তৃণমূল কর্মীদের সাথে। দুই সংগঠনের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। বাস,লাঠি, বেল্ট হেলমেট দিয়ে মারধরের অভিযোগ উঠে তৃণমূল দুষ্কৃতীদের ওপর। ঘটনাস্থলে ছুটে আসে গাজোল থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। পুলিশি হস্তক্ষেপে স্বাভাবিক হয় পরিস্থিতি।

আরও পড়ুন:  Abhishek Banerjee: শুভেন্দুর বাড়ির কাছে সভা করতে পারে তৃণমূল, অনুমতি হাইকোর্টের

ঘটনাকে কেন্দ্র করে একদিকে যেমন তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে বিজেপি ঠিক তেমনি বিজেপি তোলা অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূলের পাল্টা দাবি বিদ্রোহী মোড় এলাকায় বিজেপি বিধায়কের নেতৃত্বে তার দেহরক্ষীদের দ্বারা তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের উপর আক্রমণ করা হয়। ঘটনায় আহত হয়েছেন দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন।

বিজেপির অভিযোগ নজিরবিহীনভাবে গাজোল ব্লকের রাজনৈতিক পরিবেশ নোংরা করছে শাসক দল। পাল্টা বিধায়কের নেতৃত্বে তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলার অভিযোগ তুলে হাসপাতাল চত্বরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তৃণমূল কর্মীরা। আক্রান্তদের চিকিৎসা করা হয় গাজোল গ্রামীণ হাসপাতালে। ঘটনাকে ঘিরে চাপা উত্তেজনা তৈরি হয় এলাকায়। মোতায়েন করা হয় বিশাল পুলিশবাহিনী

Featured article

%d bloggers like this: