35 C
Kolkata

Baked sprouts khichuri: স্বাদের সাথে পরিবারের সাস্থের দিকটাও খেয়াল রাখতে চাইলে বানিয়ে ফেলুন রেসিপিটি

নিজস্ব প্রতিববেদন: সবাই মিলে একসঙ্গে বসে খাওয়াদাওয়া হত কেবল ছুটিতে বেড়াতে গেলে। সেই সঙ্গে এটাও মাথায় রাখতে হয় যে পরিবারের সকলের প্রয়োজনীয় পুষ্টির বরাদ্দ ঠিক রাখা একান্ত জরুরি। এমন রান্না এড়িয়ে চলুন যা করতে অনেক সময় আর পরিশ্রম লাগে – কারণ বাড়ির সব কাজ করে ভালগার পুষ্টিকর খাবার বানাও চেষ্টা করে। আইটিসি মৌর্যের এগজিকিউটিভ শেফ রাজদীপ কাপুর বলছেন, “রান্না দারুণ একটি শিল্প, ভালো রান্না মানুষকে খুশি করে, আনন্দ দেয়। আর প্রিয়জনকে খুশি রাখতে কার না ভালো লাগে? তাই আজ আপনাদের সাথে খুব সহজ একটি রেসিপিটি ভাগ করে নিচ্ছি।”

উপকরণ: ৩ টেবিলচামচ পেঁয়াজকুচি, ১ চাচামচ জিরে, ১টি কাঁচালঙ্কা, ১/৪ চাচামচ হলুদগুঁড়ো, স্বাদ অনুযায়ী নুন, ¼ কাপ সাদা চাওলি, ১ বড়ো চামচ টোম্যাটোকুচি,২ বড়োচামচ ফেটানো দই, ১ চাচামচ গরম মশলা, ১/৪ কাপ অঙ্কুরিত মুগডাল, সামান্য হিং, ২ বড়োচামচ ঘি, ১/২ কাপ চাল, ১/২ কাপ হলুদ মুগ ডাল, ১ বড়োচামচ ভাজা পেঁয়াজ।

পদ্ধতি: সব উপকরণ ভালো করে ধুয়ে নিন। পেঁয়াজ, লঙ্কা, টোম্যাটো কুচিয়ে নিয়ে সরিয়ে রাখুন। চাল আর ডাল খুব ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে, তার পর জলে ভিজিয়ে রাখুন খানিকক্ষণের জন্য। এবার চাল, সাদা চাওলি, মুগ ডাল আর স্প্রাউটস একসঙ্গে সেদ্ধ করতে বসান। অন্য পাত্রে ঘি গরম করে তাতে জিরে, কাঁচালঙ্কা, হিং, পেঁয়াজ, টোম্যাটো দিয়ে ভাজা ভাজা করে নিন। তার মধ্যে সেদ্ধ করা চাল-ডালের মিশ্রণ দিন। নুন-মিষ্টি চেখে দেখে নিন ঠিক আছে কিনা। এবার আভেনপ্রুফ পাত্রে ঢেলে উপরে ফেটানো দই ছড়িয়ে ১২০ ডিগ্রিতে বেক করে নিন ১০ মিনিট। নামিয়ে ভাজা পেঁয়াজ ছড়িয়ে পরিবেশন করুন চাটনির সঙ্গে।

আরও পড়ুন:  Evening Snacks Recipe: বিকেলে চটজলদি বানিয়ে ফেলুন বাঁধাকপির চপ

Featured article