24 C
Kolkata

Summer Grill and Cocktail Festival:বর্ষায় চেখে দেখুন ‘সামার গ্রিল’

নিজস্ব প্রতিবেদন: আষাঢ় মাস বলতে কখন খটখটে রোদ, আবার কখনো ঝমঝমিয়ে বৃষ্টিপাত। এমনি একটি দিনে বেরিয়ে পড়লাম এক সুস্বাধুকর অভিযানে। এই অভিযানের নাম খাদ্যাভিজান। মেঘলাদিনে যদি কিছু গরম গরম গ্রিল করা খাবার পাওয়া যায় ব্যাপারটা কেমন হবে বলুনতো? কি আপনাদেরও জিভে জল এলতো ? কলকাতার বুকে এমনি রকমারি খাদ্যের সম্ভার নিয়ে আমন্ত্রণ জানাল ‘অক্টা’ রেস্তোরাঁ। ৫ ই জুলাই, ২০ জি পার্কস্ট্রিট চত্বরে লরেটো হাউসের কাছাকাছি ‘অক্টা’ রেস্তোরাঁ ‘সামার গ্রিল এন্ড ককটেল ফেস্টিভেল ‘এর বিশেষ কিছু মেনু নিয়ে হাজির হয়েছিল।


দেশি বিদেশি স্বাদের ফিউশান নিয়ে মোট ৮ টি সুস্বাদু খাবারের পদ উপস্থাপন করলেন টিম অক্টা এবং শেফ ঋতব্রত। যদিও তার জন্য অপেক্ষা কিছু কম করতে হয়নি আমাদের। পনীর পসিন্দা, গিলাফি শিক, চানা কি গলৌটি, স্প্রিং চিকেন কাবাব, আচারি টেংরি -এ -লা নিয়াজ, মুর্গ চাপলি কাবাব, মজলিসি কাবাব, মাদ্রাসি মটন বটি, ঝিঙ্গা কোহিনুর, কলহাপুরি পমফ্রেট টিক্কা প্রভৃতি নানান পদের সম্ভারের সঙ্গে ককটেল। এর মধ্যে ছিল নিবু পানি, মিন্ট জুলেপ, মুম্বাই মুলে, ইন্ডিয়ান গিন ককটেল ইত্যাদি।

আরও পড়ুন:  টুইটার-মেটা-অ্যামাজনের পথেই হাঁটছে গুগল, কাজ হারাতে পারেন ১০ হাজার কর্মী


এর আগেও অনেক পপ আপ মেনু রেস্তোরার তরফ থেকে খাদ্য রসিকদের জন্য আনা হয়েছে। পপ আপ অর্থাৎ এক মাসের বেশি এই খাবারের পদগুলি পাওয়া যায় না। তবে বিশেষ চিহ্নিত কয়েকটি পদ সকলের প্রিয় হওয়ায় তা একমাসের বেশি সময় ধরে আগত খাদ্যপ্রেমীদের জন্য পুনরায় নিয়ে আসা হয়েছে। মূলত ইউরোপীয় স্টাইলের থেকে ইন্ডিয়ান স্টাইলের ওপরই বেশি জোর দেওয়া হয়েছে। নানান ধরনের কাবাব, মাছের মধ্যে বিশেষ করে পমফ্রেট, চিংড়ি মাছের একটি পদ। বাইরের চাকচিক্য, আড়ম্বরের চেয়ে খাবারের স্বাদের ওপরই বেশি জোর দেওয়া হয়েছে। শেফ ঋতব্রতর সাথে কথোপকথনের মাধ্যমে জানা যায় এখানকার আচারি টেংরি খুব জনপ্রিয়, যাতে রাজস্থানি মির্চি ব্যবহার করা হয়েছে।


মজলিসি কাবাব, মালাবার লাচ্ছা পরাটার সঙ্গে সুন্দর করে কাঁচা লঙ্কা এবং ছোট ছোট গোল করে কাটা আলু দিয়ে পরিবেশন করা হয়েছিল। চিংড়ি মাছের পদের সঙ্গে চারকোল এবং তিলের মিশ্রণ,দেখতে এবং স্বাদে ঠিক তন্দুরির মতো। তার সাথে পুদিনার চাটনির পরিবর্তে গ্রিন আপেল এবং লঙ্কার চাটনি বা জেল ব্যবহার করা হয়েছিল। অর্থাৎ প্রচলিত ছকের বাইরে নিজের অভিনবত্ব মিশিয়ে নতুন কিছু পরিবেশন করা। এই অবিনবত্বই হলো অক্টার বিশেষত্ব। তাহলে কি বলেন এই বর্ষায় একবার তাহলে ঘুরেই আসা যায় পার্কস্ট্রীট ‘অক্টা’ রেস্তোরাঁ এবং পানীয় শালা থেকে।

আরও পড়ুন:  Did yoy know ? : ভারতের তৈরী ৪০০০ হাজার বছর আগের একটি জিনিস, আজও যার কদর করে সারা বিশ্ব

Featured article

%d bloggers like this: