28 C
Kolkata

তদন্ত সংস্থাকে তদন্তে বাধা

নিজস্ব প্রতিবেদন: পশ্চিমবাংলা টাকার খনিতে পরিণত হয়েছিল কিছুদিন আগেই। কোথায় কোটি কোটি টাকা উদ্ধার হচ্ছে তো কথাও ভিনরাজ্যের বিধায়কের গাড়িতে লক্ষ লক্ষ টাকা। তদন্তকারী সংস্থাগুলি হিমশিম খাচ্ছে তা গুনে উঠতে।

পাঁচলাকাণ্ডের তদন্তে কোমর বেঁধে নেমে ফের অসমে বাধার মুখে পড়ল সিআইডি। রবিবার গুয়াহাটির ব্যবসায়ীর বাড়িতে নোটিস দিতে গিয়েছিল তারা। অসম পুলিশসেই ব্যবসায়ীর বাড়ি ঘিরে রাখার ফলে নোটিস না দিয়েই ফিরতে হয় তাদের। শেষে গুয়াহাটির থানায় গিয়ে নোটিস দিয়ে আসেন সিআইডি আধিকারিকরা।

ঝাড়খণ্ডের সরকার ভাঙার চক্রান্তে নাম জড়িয়েছে অসমের। গুয়াহাটিতে কংগ্রেস বিধায়কদের সঙ্গে বিজেপি নেতৃত্বের বৈঠক হয়েছে বলে দাবি সিআইডির।সূত্রের খবর, সিআইডির দাবি অশোক ধানুকা নামে গুয়াহাটির এক ব্যবসায়ী হাওয়ালা কারবারির টাকা পৌঁছে দিয়েছিল বিধায়কদের হাতে বলে অভিযোগ। সোমবারের মধ্যে তাঁকে ভবানীভবনে হাজিরা দেওয়ার নোটিস দিতে গিয়েছিলেন সিআইডি কর্তারা।

আরও পড়ুন:  Accident: রাতের অন্ধকারে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, রাস্তার ডিভাইডারে ঘুমন্ত শ্রমিকদের পিষে দিল চলন্ত ট্রাক

এদিন সকালে গুয়াহাটি পৌঁছে ধানুকার বাড়িতে পৌঁছে দেখেন বাড়ি ঘিরে রেখেছে অসম পুলিশ। সিআইডি কর্তাদের বাড়িতে ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে দাবি। তারা ফিরে যাওয়ার সময় অসম পুলিশের গাড়ি তাদের অনুূসরণ করে বলে খবর। শেষে ব্যবসায়ীর বাড়ি যে থানার অন্তর্গত সেখানে গিয়ে নোটিস দেয় সিআইডি। ব্যবসায়ীকে মেইল করেও ওই নোটিস পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন:  Goa Tmc: সবচেয়ে বেশি খরচ করেও গোয়ায় জয় অধরা তৃণমূলের
File picture: of CID officers at Police Station in Assam

গত শনিবার হাওড়ার পাঁচলার কাছে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কে ঝাড়খণ্ডের তিন কংগ্রেস বিধায়কের গাড়ি থেকে ৪৯ লক্ষ টাকা উদ্ধার করা হয়। যে ঘটনাকে ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায়। তাঁদের গ্রেপ্তারির পর জেরা করছে সিআইডি। জেরায় জানা যায়, পড়শি রাজ্য ঝাড়খণ্ডের জেএমএম-কংগ্রেস সরকার ফেলার জন্য বিজেপি প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা দিয়েছিল কংগ্রেসের ওই তিন বিধায়ককে। সেই ঘটনার তদন্তে নেমেই বারবার বাধার সম্মুখীন হচ্ছেন বাংলার সিআইডি আধিকারিকরা। এদিন গুয়াহাটি বিমানবন্দরে নামতেই ইন্সপেক্টর এবং সাব ইন্সপেক্টরকে আটক করা হয়। জানা গিয়েছে, তাঁরা সেখানে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহের জন্য গিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানকার পুলিশ জানিয়ে দেয়, কোনও ফুটেজ দেওয়া যাবে না। এরপরই তাঁদের স্থানীয় থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। রবিবার ফের একবার বাধার মুখে পড়ল সিআইডি।

আরও পড়ুন:  #IndiaPoverty Death Record: অনাহারে ভারতে ১.৭ মিলিয়ন মানুষের মৃত্যু হয় প্রতিবছর: রিপোর্ট
আরও পড়ুন:  #IndiaPoverty Death Record: অনাহারে ভারতে ১.৭ মিলিয়ন মানুষের মৃত্যু হয় প্রতিবছর: রিপোর্ট

Related posts:

Featured article

%d bloggers like this: