29 C
Kolkata

Corona Case: এই প্রথম বার কোভিড শূন্য ধারাভি

নিজস্ব সংবাদদাতা : সামান্য হলেও স্বস্তি মিলল দেশের দৈনিক করোনা সংক্রমণে। দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা, অ্যাকটিভ কেস, পজিটিভিটি সবটাই নিম্নমুখী। তবে, নতুন করে চিন্তা বাড়াচ্ছে মৃতের সংখ্যা। করোনার ওমিক্রন স্ট্রেনের মৃত্যুহার ডেল্টার তুলনায় অনেকটাই কম হওয়ার কথা। কিন্তু গত কয়েকদিনে মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধিটা সামান্য চিন্তায় রাখবে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২ লক্ষ ৩৫ হাজার ৫৩২ জন। যা আগের দিনের থেকে অনেকটাই কম। দেশের পটিজিভিটি রেটও অনেকটা কমেছে ১৩.৩৯ শতাংশ।

সেটাই বেশি চিন্তায় রাখছে চিকিৎসকদের। পরিসংখ্যান বলছে, দেশের অধিকাংশ বড় রাজ্যেই কমছে আক্রান্তের সংখ্যা। তবে, সব রাজ্যেই মৃতের সংখ্যাটা ঊর্ধ্বমুখী। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ৮৭১ জনের। এই সংখ্যাটা আগের দিনের থেকে অনেকটা বেশি। এখনও পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা ৪ লক্ষ ৯৩ হাজার ১৯৮ জন। করোনার নয়া রূপ ওমিক্রন সংক্রমণে থরহরিকম্প মহারাষ্ট্র। গত ২৪ ঘণ্টার শুধু মুম্বই শহরে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের।

আরও পড়ুন:  কী নির্মম মা
আরও পড়ুন:  Go First Flight: পাখির সঙ্গে ধাক্কা বিমানের, করানো হয় জরুরী অবতরণ

এক দিনে সংক্রামিতের সংখ্যা ১,৩১০। এর মধ্যেই অন্যরকম ছবি এশিয়ার বৃহত্তম বস্তি এলাকা ধারাভিতে। প্রশাসনের দাবি, গত শুক্রবার ধারাভির এক জনও করোনা সংক্রমিত হননি। যা গত ৩৯ দিনে প্রথম। এর আগে গত বছরের ২০ ডিসেম্বর ঘনবসতিপূর্ণ এই এলাকায় কেউ করোনা আক্রান্ত হননি।গত বছরের জুলাই মাসে ‘ধারাভি মডেল’- এর প্রশংসা শোনা গিয়েছে খোদ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস অ্যাডহ্যানোম গ্যাব্রিয়েসাসের মুখে।

অতিমারি শুরুর গোড়ার দিকে ধারাবিতে ভয়ঙ্কর সংক্রমণ শুরু হলেও পরে প্রশাসনের কড়াকড়িতে নিয়ন্ত্রণে আসে আক্রান্তের হার। ওই এলাকার পুরসভা আধিকারিক কিরণ দিঘবকরের কথায়, ‘‘এমন ঘনবসতি এলাকায় গত ৩৯ দিন পর কোনও করোনা আক্রান্তের খবর নেই। যা নিশ্চিত ভাবে স্বস্তিদায়ক।’’

Featured article