28 C
Kolkata

Crime: বিয়েতে নারাজ, মর্মান্তিক পরিণতি লিভ-ইন সঙ্গীর

নিজস্ব প্রতিবেদন: এ যেন সিনেমার গল্পকেও হার মানাবে। দীর্ঘদিন ধরে লিভ-ইন করার পর বিয়েতে রাজি হয়নি পার্টনার। রাগে পুরুষ সঙ্গীর গলা কেটে খুন করলেন এক মহিলা! এমনকি, দেহ ট্রলি ব্যাগে ভরে ফেলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু, কার্যসিদ্ধি হয়নি। অবশেষে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন অভিযুক্ত। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে।

জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত মহিলার নাম প্রীতি শর্মা। বছর চারেক আগে স্বামীর থেকে আলাদা হন তিনি। এরপর তিনি ২৩ বছরের ফিরোজ ওরফে চান্নির সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান। তারপর থেকেই ফিরোজের সঙ্গেই লিভ-ইন করছিলেন প্রীতি। পুলিশি জেরায় অভিযুক্ত জানিয়েছেন, বেশ কিছুদিনের লিভ-ইনের পর ফিরোজকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তাতে রাজি হননি ফিরোজ। বিয়ের জন্য প্রীতি জোর করায় তাঁদের মধ্যে ঝামেলা বাধে। ভিন্ন ধর্মে বিয়ে সম্ভব নয় জানান ফিরোজ। প্রীতিকে ‘চরিত্রহীন’ বলে মন্তব্য করেন তিনি। এরপরই রাগের বশে ক্ষুর দিয়ে ফিরোজের গলা কেটে দেন প্রীতি।

আরও পড়ুন:  cheetahs: শীঘ্রই ভারতের মাটিতে পা রাখবে আরও চিতা
আরও পড়ুন:  Operation Meghchakra: দেশজুড়ে Child Pornography চক্র রুখতে তৎপর CBI

পুলিশ জানিয়েছে, খুনের পর ফিরোজের দেহ ট্রলি ব্যাগে ভরে তা ফেলার জন্য গাজিয়াবাদ স্টেশন থেকে ট্রেন ধরতে গিয়েছিলেন প্রীতি। রুটিন তল্লাশির সময় ট্রলি ব্যাগ থেকে দেহের খোঁজ পায় পুলিশকর্মীরা। তারপরই প্রীতিকে গ্রেপ্তার করা হয়। যে ক্ষুর দিয়ে ফিরোজকে খুন করা হয়েছিল, সেটিও উদ্ধার করা হয়েছে।

Featured article

%d bloggers like this: