22 C
Kolkata

Even South Asian countries were disapointed at prophet remark: শুধু মধ্যপ্রাচ্য নয় আঙ্গুল তুলেছিল দক্ষিণ এশীয় দেশগুলিও

নিজস্ব প্রতিবেদন: দেশে বিদেশে অশান্তি। অশান্তির কারণ হজরত মহম্মদকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জের। হিংসা ছড়িয়েছে ভারতের নানা রাজ্যে। অন্যদিকে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও বেশ চাপের মুখে পড়েছে ভারত। এই পরিস্থিতিতে প্রথমবার মুখ খুললেন বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। তিনি বলেছেন কেবলমাত্র উপসাগরীয় দেশগুলিই নয়, দক্ষিণ এশিয়ার বেশ কিছু রাষ্ট্র থেকেও ওই বক্তব্যের বিরোধিতা করে বার্তা দেওয়া হয়েছিল। তবে পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলেই তিনি জানিয়েছেন। সেই সঙ্গে আরও বলেছেন, বিতর্কের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঘোলা জলে মাছ ধরতে চাইছে বেশ কিছু দেশ। তবে তারা সফল হবে না বলেই দাবি করেছেন জয়শংকর।

নূপুর শর্মার মন্তব্য নিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই বিজেপির তরফ থেকে সাফাই দিয়ে বলা হয়, এই কথা তাদের দলীয় স্বার্থের বিরোধী। সকল ধর্মকে সমান চোখে দেখা হয় তাদের দলে। সঙ্গে সঙ্গে দলের মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও নবীন জিন্দলকে বহিষ্কার করা হয়। সরকারের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, এই মন্তব্য একান্তই বিজেপির দলীয় মত। তার সঙ্গে একমত নয় সরকার। সেই প্রসঙ্গ টেনে জয়শংকর বলেছেন, সংশ্লিষ্ট দেশগুলি এই কথা বুঝেছে। তারা বহুদিন ধরেই আমাদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক রেখেছে। এটা যে আমাদের সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি নয়, সেই কথাও বুঝেছে।”

আরও পড়ুন:  Shraddha Walker Murder Case: শ্রদ্ধাকে খুন পূর্বপরিকল্পিত! চলছে আফতাবের পলিগ্রাফ পরীক্ষা
Nupur Sharma and Naveen Jindal whose comments and tweet set the ball of fire rolling

এরপরেই তিনি বলেন, শুধুমাত্র মধ্যপ্রাচ্য নয়, দক্ষিণ এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশ থেকেও পয়গম্বর বিতর্কে তীব্র নিন্দা করা হয়েছে। তবে সরকারের অবস্থানে তারা সন্তুষ্ট বলেই জানিয়েছেন জয়শংকর। তাছাড়াও তিনি বলেন, “বিতর্কের সুযোগ নিয়ে বেশ কিছু দেশ ঘোলা জলে মাছ ধরতে চেয়েছিল। আন্তর্জাতিক সম্পর্কের বিষয়টা প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটা খেলার মতো। এখানে কুইন্সবেরি নিয়ম মেনে খেলা হয় না।”

জয়শংকর বলেছেন, “আমাদের সংস্কৃতি কী, সেটা আমাদেরকেই বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে হবে। গত কয়েকদিনে আমরা সেই কাজটিই করেছি। নানা দেশ এখন বুঝতে পারছে ভারতীয় সংস্কৃতির স্বরূপ।” তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, যেসব দেশে গণতন্ত্র নেই, তারাও ভারতের গণতান্ত্রিক অবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল। সেই কথার উত্তরে জয়শংকর বলেন, “বিষয়টা ওভাবে দেখা উচিত নয়। আমি মনে করি এই ঘটনায় মানুষের ভাবাবেগে আঘাত লেগেছিল। সেই কারণেই ভারতের দিকে আঙুল উঠেছিল। তবে ভারত সরকারের অবস্থান এখন সকলের কাছেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। তাই এখন আর কোনও সমস্যা হবে না বলেই মত বিদেশমন্ত্রীর।

আরও পড়ুন:  Ambani: মুকেশ আম্বানির পরিবারে দুই নতুন সদস্য

Featured article

%d bloggers like this: