29 C
Kolkata

ভারতে যুদ্ধজাহাজ মেরামতি কী এক রণনীতি?

নিজস্ব প্রতিবেদন: দক্ষিণ এশিয়াতে বেজে গেছে রণভেরী। চীন তাদের এক রণতরী শ্রীলংকার বন্দরে নোঙ্গর করার কথা জানিয়েছে। প্রথমে শ্রীলংকা চীনের কথা মেনে নিলেও , ভারতের আপত্তিতে তারা সেই রণতরীকে এখুনি আস্তে বাধা দিয়েছে। চীন সঙ্গে সঙ্গে কূটনৈতিক বৈঠকে বসতে উদ্যোগ নিয়েছে। দ্বীপরাষ্ট্র টেপবনের চারদিক ঘিরে চীন যুদ্ধ মহড়া চালালো। এইরকম অবস্থায় ভারত মহাসাগর যে বেশ উত্তাল তা বেশ বোঝাই যাচ্ছে।

এবার সব কিছু কে চাপিয়ে আরও চমকে দেবার মত খবর, মার্কিন রণতরী চার্লস ড্রিউ এসেছে চেন্নাই বন্দরে। রবিবার চেন্নাইয়ের কাট্টুপাল্লিতে লারসেন অ্যান্ড টিউব্রোর বন্দরে এসেছে জাহাজটি। এর ফলে ভারতীয় বন্দরগুলির পরিষেবা সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা তৈরি হবে আন্তর্জাতিক মহলে। এই ঘটনাটি ভারতীয় জাহাজ প্রস্তুতির ইতিহাসে এক সুবর্ণ দিন হিসাবে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

আরও পড়ুন:  Mathura Radha Rani temple : ইতিহাস সৃষ্টি করতে গিয়েও হল না মথুরায়

মার্কিন যুদ্ধজাহাজকে স্বাগত জানানোর পরে প্রতিরক্ষা সচিব জানিয়েছেন, “মার্কিন নৌবাহিনীর জাহাজ চার্লস ড্রিউ ভারতে আসায় আমরা খুবই খুশি। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে ভারত এবং আমেরিকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও মজবুত হবে বলেই আমাদের ধারণা। তবে এটাই শুরু। আগামী দিনে দুই দেশের মধ্যে এধরনের উদ্যোগ নেওয়া হবে। ভারতের জাহাজ তৈরির প্রযুক্তি যে আগের থেকে অনেক উন্নত হয়েছে, মার্কিন নৌবাহিনীর জাহাজ আসায় সেটাই প্রমাণিত হল।”

আরও পড়ুন:  Terrorists Arrest: বড় সন্ত্রাসী ছক বানচাল, সীমান্ত থেকে গ্রেপ্তার দুই হাইব্রিড জঙ্গি

তিনি আরও জানিয়েছেন,”শুধুমাত্র নিজেদের প্রয়োজনের জন্যই জাহাজ বানাচ্ছি না আমরা। যে কোনও ধরনের জাহাজ বানানোর পরিকাঠামো রয়েছে ভারতের কাছে। তার অন্যতম প্রধান উদাহরণ হল আমাদের দেশে তৈরি আইএনএস বিক্রান্ত। নতুন প্রযুক্তিকেও সঠিকভাবে কাজে লাগিয়ে উন্নতমানের জাহাজ বানানোর কাজ চলছে।” ভারত এবং আমেরিকার মধ্যে নানা ক্ষেত্রে সম্পর্ক তৈরি হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন অজয়।

আরও পড়ুন:  NIA Raid West Bengal: দুর্নীতি দমনে পশ্চিমবঙ্গে এনআইএ

প্রশান্ত মহাসগরীয় অঞ্চলে দাপট বজায় রাখার জন্য ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখতে বেশ উদ্যোগী আমেরিকা। সেই কারণেই নানা ক্ষেত্রে মনোমত অবস্থান নিলেও ভারতের বিরোধিতা করেনি আমেরিকা। ‘মেড ইন ইন্ডিয়া’ প্রকল্প যেন সাফল্যমণ্ডিত হয়, সেই কথা মাথায় রেখে নৌবাহিনীর জাহাজ মেরামতির জন্য ভারতে পাঠানো হয়েছে। ব্যবসায়িক ক্ষেত্রেও আমদানি-রপ্তানির পরিমাণ উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে। সবমিলিয়ে, আগামী দিনে ভারত-আমেরিকা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও মজবুত হবে বলেই অনুমান ওয়াকিবহাল মহলের।

আরও পড়ুন:  ক্লাসে বকেছিলেন, বদলা নিতে শিক্ষককে গুলি করল ছাত্র

Featured article

%d bloggers like this: