27 C
Kolkata

ফের করোনা আক্রান্ত ভারতের প্রথম কোভিড রোগী

নিজস্ব সংবাদদাতা : তখন সবে করোনা সংক্রমণ ছড়াতে শুরু করেছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে। চিনে একের পর এক আক্রান্ত হচ্ছেন। এই সময়েই গত বছর জানুয়ারি মাসে করোনার হটস্পট চিনের উহান থেকে ভারতে ফেরেন কেরলের এক যুবতী। তিনি সেখানকার মেডিক্যালের ছাত্রী। কেরলের ত্রিশুরে তাঁর বাড়ি। দেশে ফিরলে জানা যায়, তিনি করোনায় আক্রান্ত।

এর পর থেকে গোটা দেশে ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ে সংক্রমণ। এর দেড় বছর কেটে গেছে। ফের তিনি করোনা পজিটিভ। মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষের তরফে জানা গেছে, ওই ছাত্রী বিমানে দিল্লি যাওয়ার উদ্যোগ নিচ্ছিলেন। তাই কোভিড পরীক্ষা করিয়েছিলেন। তখনই জানা যায়, তিনি আবার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

খবর অনুযায়ী, ওই যুবতী এখনও ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নেননি। যদিও মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, চিন্তার কোনও বিষয় নেই। এখন পর্যন্ত তিনি উপসর্গহীন রয়েছেন। প্রসঙ্গত, উহান থেকে সেই ফেরার পর এখনও তিনি ফিরে যাননি। বাড়ি থেকেই অনলাইনে ক্লাস করছেন তিনি। চিনের যে উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাস মহামারির প্রাদুর্ভাব দেখা গিয়েছিল, সেই উহান শহরেই তৃতীয় বর্ষের মেডিকেল শিক্ষার্থী ছিলেন এই যুবতী।

আরও পড়ুন:  Sonakshi Sinha: লন্ডনে অর্জুনের সঙ্গে একান্তে কি করছে সোনাক্ষী?
আরও পড়ুন:  Mathura Radha Rani temple : ইতিহাস সৃষ্টি করতে গিয়েও হল না মথুরায়

সেমেস্টার-এর ছুটিতে কোনোক্রমে বাড়ি ফেরার সুযোগ হয়েছিল তাঁর। ত্রিশুরে ফিরে আসার কয়েকদিন পরই তাঁর শরীরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। সেই প্রথম ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঘটনা ধরা পড়েছিল। ত্রিশুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রায় তিন সপ্তাহ চিকিত্সার পর, তাঁর দু’বার করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল নেতিবাচক এসেছিল।

২০২০ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন তিনি। তাঁর পরে তাঁর সঙ্গেই উহান থেকে ফেরা আরও দুইজনও কোভিড পজিটিভ হিসাবে সনাক্ত হয়েছিলেন। তারপর থেকে প্রায় দেড় বছর কেটে গিয়েছে। ভারতের করোনা রোগীর সংখ্যা এখন ৩ কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে। আর এই মহামারিতে প্রাণ হারিয়েছেন ৪ লক্ষেরও বেশি মানুষ।

Featured article

%d bloggers like this: