32 C
Kolkata

Rupee price: বিশ্ববাজারে ভারতীয় মুদ্রার রেকর্ড পতন! তলানিতে টাকার দাম

নিজস্ব প্রতিবেদন: মূল্যবৃদ্ধির জেরে একেই নাজেহাল আমজনতা। ভোজ্য তেল থেকে শুরু করে জ্বালানী তেল কিনতে মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হচ্ছে মধ্যবিত্তদের। এই পরস্থিতিতে ফের রেকর্ড পতন টাকার দামে। সোমবার বাজার খুলতেই এক ধাক্কায় বেশ কমে যায় টাকার দাম। এদিন সকাল সাড়ে ৯টায় প্রতি মার্কিন ডলার পিছু ভারতীয় মুদ্রার দাম পড়েছে ৮০ টাকা ৩ পয়সা। যা আগেরদিনের তুলনায় ০.২৫ শতাংশ কম। বাজার বন্ধের সময়ে তা সর্বনিম্ন রের্কড গড়ে ৮০.১৫ টাকায় পৌঁছয়।

সকাল থেকে ধাপে ধাপে টাকার দামে পতন শুরু হয়। প্রথমে দাম পড়ে ৮০.০১ টাকা। তারপরে হয় ৮০.০৭ টাকা। এক ধাক্কায় দাম পড়তে পড়তে শেষে ৮০.১৫-এ এসে নেমেছে টাকার দাম। তার জেরে দেশের অর্থনীতিতে বিপুল ধাক্কা আসবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিশ্বব্যপী আর্থিক মন্দা মোকাবিলায় মার্কিন ব্যাঙ্কগুলি ডলারের দাম বাড়ানোয় এবং ক্রুড তেলের দাম বাড়ার কারণেই ডলার প্রতি টাকার দামে ফের পতন শুরু হয়েছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

আরও পড়ুন:  H3N2 Virus: কোভিডের পরে এবার থাবা বসাল হংকং ভাইরাস!

এইভাবে যে টাকার দাম কমে যাবে, সেটা প্রত্যাশিত ছিল বলেই মত ওয়াকিবহাল মহলের। বাজার খোলার সময়ে যদি নাও হয়, তবে সারাদিনের কোনও এক সময়ে টাকার দামে পতন ঘটবে বলেই অনুমান করা গিয়েছিল। বিনিয়োগকারীদের মতে, অদূর ভবিষ্যতে মুদ্রাস্ফীতির সমস্যার সমাধান করতে হবে। সেই কারণে আবারও রেপো রেট বাড়ানোর সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে। সবমিলিয়ে টাকার দামের উপর চাপ বাড়ছে।

অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, ভারতীয় মুদ্রার দাম হু হু করে পড়ার অন্যতম কারণ হল আমেরিকায় মূল্যবৃদ্ধি। চার দশকে সর্বপ্রথম সর্বোচ্চ মূল্যবৃদ্ধির সাক্ষী হয়েছে আমেরিকা। করোনা মহামারি থেকেই অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছে আমেরিকা। একটু ঘুরে দাঁড়ালেও মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হয় বাইডেন সরকার। ফলত, মূল্যবৃদ্ধি সর্বকালীন রেকর্ড ছুঁয়েছে। তার নেতিবাচক প্রভাব গোটা বিশ্বেই পড়েছে। গত মার্চ থেকেই ডলারের নিরিখে ভারতীয় মুদ্রার ক্রমশ অধোগতির দিকে এগিয়েছে।

আরও পড়ুন:  FD Interest Rate: ফিক্সড ডিপোজিটে ফের বাড়ল সুদের হার !

Featured article

%d bloggers like this: