20 C
Kolkata

যোগী প্রশাসনের ভূমিকায় বিরক্ত শীর্ষ আদালত

নিজস্ব সংবাদদাতা: গতকালই শীর্ষ আদালতের তরফে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে এফআইআরের যাবতীয় তথ্য, মৃত আটজন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সহ মামলার যাবতীয় গতিপ্রকৃতি নিয়ে একটি রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছিল। এমনকি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় কুমার মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্রকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাজিরা দিতে বলা হয়েছিল।

যদিও আজ মন্ত্রীপুত্র সেই সমন এড়িয়ে গিয়েছেন এবং হাজিরা দেননি। আদালত শুক্রবারের শুনানিতে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেয়, ‘লখিমপুর কাণ্ডে আটজনের মৃত্যুর পরও যোগী সরকার যে পদক্ষেপ নিয়েছে তা মোটেও পর্যাপ্ত নয়। এই ভূমিকায় মোটেও খুশি নয় আদালত।’ মামলার পরবর্তী শুনানি ২০ অক্টোবর অর্থাৎ দশমীর পর। লখিমপুর ঘটনার পর পার হয়ে গিয়েছে পাঁচ দিন।

এই ঘটনায় কতজন গ্রেফতার হয়েছে, এবার সেই রিপোর্ট চেয়ে পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট। শুক্রবারের মধ্যে উত্তরপ্রদেশ সরকারের থেকে জবাব চেয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার লখিমপুর খেরির ঘটনার শুনানি হয় প্রধান বিচারপতি এনভি রামানার বেঞ্চে। এদিন সুপ্রিম কোর্ট বলে, ‘ঘটনাটি অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। আমাদের জানান কতজনের বিরুদ্ধে FIR দায়ের হয়েছে।

আরও পড়ুন:  ‘বাংলা যদি আমার প্রথম ঘর হয়, তাহলে ত্রিপুরা আমার দ্বিতীয় ঘর’ : ত্রিপুরায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

তাদের মধ্যে কতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’ উল্লেখ্য, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি -কে এই মামলায় সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপের লিখিত আবেদন জানান। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতেই এদিনের শুনানি। এদিন পিটিশনকারী বলেন, ‘এই ঘটনায় আদালতকে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আবেদন জানাচ্ছি। ঘটনাটিতে মানবাধিকারকে লঙ্ঘিত করেছে।’ এই ঘটনায় উত্তরপ্রদেশ সরকার উপযুক্ত পদক্ষেপ নেয়নি বলেও অভিযোগ করা হয়েছে।

Featured article

%d bloggers like this: