18 C
Kolkata

কৃষি আইন নিয়ে কেন্দ্রকে হুঁশিয়ারি শীর্ষ আদালতের

নিজস্ব সংবাদদাতা : ‘আপনারা কি কৃষি আইন প্রণয়ন করা থেকে বিরত থাকবেন, নাকি কেন্দ্রের হয়ে পদক্ষেপ নেব আমরা ?’ এই ভাষাতেই কৃষি আইন নিয়ে কেন্দ্রকে হুঁশিয়ারি দিল সুপ্রিমকোর্ট। যদিও কৃষকদের আন্দোলনের জায়গা পরিবর্তনের পক্ষে নিদান দিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট।

কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে শুরু হওয়া কৃষকদের আন্দোলন নিয়ে মোদি সরকারের ভূমিকায় তীব্র অসন্তুষ্ট শীর্ষ আদালত। সোমবার এ সংক্রান্ত এক জনস্বার্থ মামলার শুনানিতে দেশের প্রধান বিচারপতি শরদ আনন্দ বোবদে কার্যত কেন্দ্রকে তুলোধনা করেছেন।

কেন্দ্রের আইনজীবীর উদ্দেশে তিনি ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন, ‘যেভাবে আপনারা কৃষকদের আন্দোলন নিয়ে ভূমিকা পালন করছেন তা যথেষ্টই নিরাশাজনক। এখনও পর্যন্ত কেউ নয়া কৃষি আইনের প্রশংসা করেছেন এমন কোনও ঘটনা নজরে আসেনি।’ কৃষকদের বিক্ষোভ এবং কৃষি আইনের বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একাধিক আবেদন একত্রিত করে এ দিন সুপ্রিম কোর্টের শুনানিতে এই ‘ধারালো’ মন্তব্য যথেষ্ট তাত্পর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

আরও পড়ুন:  BJP: পাখির চোখ লোকসভা নির্বাচন! আগামী সপ্তাহে জরুরি বৈঠক বিজেপির

তবে বিজেপি নেতৃত্বের একাংশের বক্তব্য, এটা আদালতের পর্যবেক্ষণ, মোটেই রায় নয়। প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, ‘অনভিপ্রেত কিছু ঘটে গেলে আমরা প্রত্যেকে দায়বদ্ধ থাকবো । আমরা কোনো মতেই আঘাত বা রক্তপাত চাই না’।

গত ৭ জানুয়ারি অষ্টমবারের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার কৃষক নেতাদের সঙ্গে আলোচনায় বসে। তখনই কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর স্পষ্ট বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার কৃষি আইন বাতিল করবে না। কৃষক ইউনিয়নগুলি ইচ্ছা করলে সুপ্রিম কোর্টে যেতে পারে।

আগামী ১৫ জানুয়ারি ফের কৃষক নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসবে সরকার। কৃষক নেতারা আইন প্রত্যাহার ছাড়া আর কিছুতে রাজি নন। গত শনিবার কনসর্টিয়াম অব ইন্ডিয়ান ফার্মার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিরা সীর্ষ আদালতে কৃষি আইনের সমর্থনে আবেদন করেন। তাঁদের মতে, নতুন আইনে কৃষকদের উপকার হবে।

আরও পড়ুন:  Gujarat Assembly Election: বিজেপির ফরেই নির্বাচন হচ্ছে গুজরাতে

Featured article

%d bloggers like this: