24 C
Kolkata

করোনায় মৃত উত্তরপ্রদেশের কারিগরি শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা :: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন উত্তরপ্রদেশের কারিগরি শিক্ষামন্ত্রী মন্ত্রী কমলরানি বরুণ । রবিবার লখনউয়ে মৃত্যু হয় মন্ত্রীর। বিজেপির মহিলানেত্রী হিসাবে জনপ্রিয় কমলরানির বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে তিনি সক্রিয় রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন। দু’বার লোকসভা ভোটে জিতে সংসদেও গিয়েছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ মন্ত্রিসভার সদস্য কমলরানি আগেই করোনা পজিটিভ হন। গত ১৮ জুলাই তাঁর নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তার পর থেকে চিকিত্‍সাধীন ছিলেন। করোনার বিরুদ্ধে প্রায় দু’সপ্তাহের লড়াই শেষে লখনউয়ের একটি হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর।মন্ত্রীর মৃত্যুর পর শোকপ্রকাশ করেন আদিত্যনাথ। সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের কাছে তিনি বলেন, ‘তিনি (কমলরানি) একজন জনপ্রিয় নেত্রী এবং সমাজকর্মী ছিলেন। মন্ত্রিসভার সদস্য হওয়ার পর দক্ষতার সঙ্গে কাজ করেছিলেন’।১৯৫৮-এ কমলরানির জন্ম লখনউয়ে। রাষ্ট্রীয় সয়মসেবক সংঘের প্রতিনিধি কৃষণ লাল বরুণের সঙ্গে ষতাঁর বিয়ে হয়। সমাজবিদ্যায় স্নাতকোত্তর ছিলেন কমলা রানি দেবী। কানপুরের দ্বারকাপুরি ওয়ার্ড থেকে ১৯৮৯ -এ প্রথমে কাউন্সিলারের পদে লড়াই করেন তিনি। সেখান থেকে জিতে যান। ১৯৯৫-এ ফের একবার কর্পোরেশনের সেই ওয়ার্ড থেকে জয়ী হন তিনি। এরপর ১৯৯৬-এ বিজেপি তাঁকে ঘতমপুর আসন থেকে সাংসদ পদের জন্য টিকিট দেয়। তিনি বিপুল ভোটে জিতে যান। ১৯৯৮-এ আবার তাঁর জয় হয়। তবে ১৯৯৯-এর লোকসভা আসনে বিএসপি প্রার্থীর কাছে তিনি হেরে যান। সাংসদ হিসেবে তিনি শ্রমদফতরের পার্লামেন্ট অ্যাডভাইসারি কমিটির কাজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।২০১৫-এ তাঁর স্বামীর মৃত্যু হয়। ২০১৭-এ ঘতমপুর থেকে বিধায়ক হিসেবে জেতেন কমলা রানি বরুণ। ২০১৯সালে তাঁকে রাজ্য মন্ত্রীত্বের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এদিন তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ

আরও পড়ুন:  Did You Know ?: ভারতে পাঁচটি মন্দির যেখানে মহিলার প্রবেশ নিষেধ

Featured article

%d bloggers like this: