29 C
Kolkata

Vice Presidential Election: ধনকড় না আলভা কে হাসবেন শেষ হাসি ?

নিজস্ব প্রতিবেদন: শুরু হল দেশের ১৪ তম উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন। ভাগ্য নির্ধারিত হবে জগদীপ ধনকড় এবং মার্গারেট আলভার। সকাল ১০ টা থেকে ভোট গ্রহণ পর্ব শুরু হয়ে গিয়েছে। চলবে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত। গত মাসে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধীদের প্রার্থীকে হারিয়েছিলেন এনডিএ প্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মু। এবারও খাতায়-কলমে অনেকটাই এগিয়ে এনডিএর প্রার্থী জগদীপ ধনকড়। বিরোধীদের সমর্থিত প্রার্থী মার্গারেট আলভাকে হারিয়ে তাঁর জয় কার্যত নিশ্চিত। এদিকে, দেশের বর্তমান উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডুর কার্যকালের মেয়াদ শেষ হতে চলেছে আগামী ১০ অগস্ট।

উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ-র পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। অন্যদিকে ধনখড়ের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছেন বিরোধীদের পদপ্রার্থী কংগ্রেস নেত্রী তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মার্গারেট আলভা। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের মত উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনেও সাধারণ মানুষ অংশগ্রহণ করতে পারেনা। এক্ষেত্রে ভারতীয় সংবিধানের ৬৬ নম্বর ধারা অনুযায়ী নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করবেন রাজ্যসভা এবং লোকসভার নির্বাচিত সাংসদরা।

আরও পড়ুন:  Go First Flight: পাখির সঙ্গে ধাক্কা বিমানের, করানো হয় জরুরী অবতরণ
আরও পড়ুন:  Kolkata: মাতৃত্বকালীন মৃত্যুতে বিশেষ নির্দেশিকা নবান্নের

এদিন রাজ্যসভার ২৩৩ জন নির্বাচিত সদস্য, ১২ জন মনোনীত সদস্য এবং লোকসভার ৫৪৩ জন নির্বাচিত সদস্য ভোট দান প্রক্রিয়ায় অংশ নেবেন। দুই সভা মিলিয়ে ৭৮৮ জন উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। গোপন ব্যালট পেপারে ভোট দেবেন সাংসদরা। একক ভোটদানের মাধ্যমে আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব মেনেই সম্পন্ন হবে উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন। এই নির্বাচনে কোনও দলীয় হুইপ জারি করা যায় না।

বৃহস্পতিবার ট্যুইটে একটি ভিডিও বার্তা পোস্ট করেন মার্গারেট আলভা। সাংসদদের উদ্দেশ্যে তিনি নির্ভয়ে ভোট দেওয়ার অনুরোধ জানান। গত ১৭ জুলাই, রবিবার শরদ পাওয়ারের বাড়িতে বৈঠক করে বিরোধী দলগুলি। সেই বৈঠকেই চূড়ান্ত হয় কংগ্রেস নেতা মার্গারেট আলভার নাম। ডিএমকে, সমাজবাদী পার্টি, আরজেডি, শিবসেনা, টিআরএস, আরএলডি, সিপিআইএম, সিপিআই এবং আরএসপি সমর্থন করে কংগ্রেসকে। কিন্তু বৈঠকে ছিল না তৃণমূল। এরপর থেকেই উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে তৃণমূল-কংগ্রেসের অবস্থান নিয়ে শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। তবে অবশেষে সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ভোটদানে বিরত থাকার কথা‌ ঘোষণা করে তৃণমূল-কংগ্রেস। অন্যদিকে সম্প্রতি আম আদমি পার্টি (AAP) ও ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা (JMM) মার্গারেট আলভাকে সমর্থনের কথা ঘোষণা করেছে।

আরও পড়ুন:  অগ্নিমূল্যের বাজারে ফের বাড়ল Repo Rate, চাপ বাড়বে মধ্যবিত্তের

Featured article