24 C
Kolkata

Taliban: স্কুল বন্ধ! দ্বিগুণ বয়স্ক ছেলের সঙ্গে বিয়ে হচ্ছে আফগান কিশোরীদের

কাবুল: পরাধীন অফগানিস্তান। তালিবানী শাসন জারি হওয়ার পর থেকে নাভিশ্বাস উঠছে মেয়েদের। কিশোরী বয়সে মেয়েদের বিয়ে দিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে পরিবার। ২০২১ সালের ১৫ আগস্ট আফগান মাটি তালিব দখলে চলে যায়। আর তারপর থেকেই সব শেষ। স্কুল যাওয়া বন্ধ। এই কিশোরী জাইনাবের কথায়, ‘তালিবানরা আবার স্কুল খুলে দেবে। বাবাকে অনেকবার বললেও শোনেনি। বলেছে, স্কুল আর খুলবে না।স এর চেয়ে বিয়ে করে নেওয়াই ভালো।’ ১৭ বছরের বড় পাত্রর সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয় তার। কেউ মতামত জানতেও চায়নি। কয়েকটা ভেড়া, ছাগল আর চাল নিয়ে আসে পাত্রপক্ষ। সেখানে মেয়ের বাড়িতে যৌতুক দিতে হয়। বিয়ের পরও রক্ষে নেই। শ্বশুরবাড়িতে অত্যাচার করছে। পণ দিয়েছে বলে কথা শোনাচ্ছে। আর বলছে, ‘তুমি তো কিছুই পারো না। এত টাকা খরচ করলাম।’ এই মুহূর্তে পৃথিবীতে একমাত্র আফগানিস্তানেই মেয়েদের নিয়ম করে স্কুলে যাওয়ার অধিকার নেই।

আরও পড়ুন:  Earthquake: ইন্দোনেশিয়ার পর কেঁপে উঠল সলোমন দীপপুঞ্জ, জারি সুনামি সতর্কতা

গত বছর আফগান দখলে গিয়েছে তালিবদের। তারপর থেকেই স্বাধীনতা ডগে উঠেছে। কয়েকমাস আগে মহিলাদের পার্কে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করে সরকার। এরপর বাধা এলো জিমেতেও। জানা গিয়েছে, পুরুষ মহিলা একসঙ্গে জিমে প্রবেশ করায় এই বাধা আনার কথা ভেবেছে তালিব সরকার। তালিবান সরকারের মুখপাত্র মহম্মদ আকিফ মহাজির জানিয়েছে, ‘জিম ও পার্কে মহিলা এবং পুরুষের প্রবেশের দিন আলাদা ধার্য করা ছিল। তা মানা হচ্ছিল না। সেসব দেখেই বিগত ১৫ মাস ধরে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করার কথা ভাবছে তালি সরকার। দুর্ভাগ্যবশত মহিলারা হিজাবও পড়ছেন না।’

Featured article

%d bloggers like this: