28 C
Kolkata

হতাশ হলেন বিল গেটস

নিজস্ব সংবাদদাতা :: গত কয়েকদিন দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা আমেরিকাকে পেছনে ফেলে দিয়েছে ভারত। তবে মার্কিন মুলুকের সামগ্রিক পরিস্থিতি কিন্তু এখনও যথেষ্ট আশঙ্কার। গোটা দুনিয়ায় যেখানে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২ কোটির কাছাকাছি সেখানে মার্কিন মুলুকেই মোট সংক্রমণ ৫০ লক্ষ ছাড়িয়েছে। অর্থাত্‍ বিশ্বের ২৫.৫ শতাংশ করোনা রোগীই রয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে।ইতিমধ্যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দেশে করোনার বলি হয়েছে ১ লক্ষ ৬০ হাজারের বেশি মানুষ। যা করোনায় বিশ্বে মোট মৃতের সংখ্যার এক তৃতীয়াংশ। গবেষণায় উঠে এসেছে, প্রতি ৬৬ জন বাসিন্দার মধ্যে একজন কোভিড-১৯ পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন।এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই হতাশা চেপে রাখতে পারলেন না বিল গেটস। সংক্রমণের ফলাফল দেখে তিনি তিরস্কারের সুরে বলেছেন ‘মাইন্ড ব্লোয়িং, মার্কিন সরকার এখনও করোনা ভাইরাসের টেস্টিং পদ্ধতিতে কোনওরকম উন্নতি করতে পারেনি’। আগেও তিনি এই অভিযোগ এনেছিলেন যে মার্রকিন মুলুকে করোনাভাইরাস টেস্টের গোটা পদ্ধতিই একেবারে দীর্ঘ সূত্রিতায় বাঁধা। গেটসের মতে , ‘আজ কারও লালারসের নমুনা করোনা পরীক্ষার জন্য গেলে তার ফলাফল আসতে এক সপ্তাহ সময় লেগে যায়। করোনাভাইরাসের টেস্ট ও রিপোর্ট সংক্রান্ত বিষয়ে এদেশে একটা তীব্র গাফিলতি বিদ্যমান’। সিএনএন-কে দেওয়া এক সাক্ষাত্‍কারে মার্কিন টেক জায়ান্ট বলেন, ‘অন্যান্য দেশের তুলনায় সবথেকে অপদার্থ টেস্ট রেজাল্ট পেতে তুমি একটা অসম পথে কোটি কোটি ডলার খরচ করে চলেছো। টেস্ট নিয়ে এই ধরনের পাগলামি অন্য কোনও দেশে হচ্ছে না।’ গেটসের আশা, আগামী বছরে যখন ভ্যাকসিন সহজলভ্য হবে, তখন হয়তো মার্কিন মুলুকে এই মহামারীর প্রকোপ কমতে পারে। কিন্তু এর মধ্যেও স্কুলে ক্লাস চালু করায় জোর দিয়ে চলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বাধ্য হয়ে গত মাসে স্কুল খোলার অনুমোদন ও গাইডলাইন প্রকাশ করে সেন্টার অব ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশান। গত সপ্তাহেই তাই পুনরায় ক্লাসও শুরু করে দেয় কিছু স্কুল। আর তারপরেই ফের দুঃসংবাদ।বেশ কয়েকজন পড়ুয়া করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েন।

আরও পড়ুন:  Russia-Ukraine War: ইউক্রেনের অধিকৃত অঞ্চলে গণভোট ঘোষণা পুতিনের

Featured article

%d bloggers like this: