29 C
Kolkata

বাংলাদেশ কোনদিকে

ঢাকা: বিশেষজ্ঞরা মনে করছে পূর্ব এবং দক্ষিণ এশিয়া যুদ্বের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। একদিকে চীনের আস্ফালন, তো অপরদিকে কোয়াডের নজরদারি। তার ওপর প্রায় আড়াই দশক পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অফ রিপ্রেসেন্টেটিভস এর স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির এশিয়া সফর। সবদিক দিয়ে দেখতে গেলে সব দেশগুলি নিজেদের পাল্লা ভারী করতে অন্যান্য দেশের সাহায্য নিতে ব্যস্ত।

বাংলাদেশ জানিয়েছে, তাইওয়ান ইস্যুতে পরিস্থিতি গভীরভাবে নজরে রাখছে তারা। ঢাকা থেকে শেখ হাসিনার সরকার এই ইস্যুতে অত্যন্ত সংযম রাখার কথা বলেছেন। উল্লেখ্য, ঢাকায় নিযুক্ত চীন রাষ্ট্রদূত তাদের রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের সমর্থন কামনা করেন। কূটনৈতিক সূত্রে খবর, চীনের বিদেশমন্ত্রীর আসন্ন ঢাকা সফরকালে ৮টি চুক্তি ও সমঝোতা স্বাক্ষরের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও এই সফরে দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয় ছাড়াও আন্তর্জাতিক ও বহুপক্ষীয় বিষয়েও আলোচনা হতে পারে। আগামী ৬ আগস্ট চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই দু’দিনের ঢাকা সফরে আসছেন। বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত এসব সমঝোতা ও চুক্তির প্রস্তুতি নিয়ে ঢাকায় বিদেশমন্ত্রকের আধিকারিকরা কাজ করছিলেন।

আরও পড়ুন:  Bangladesh: জ্বালানির লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধি, প্রতিবাদে জনবিক্ষোভ বাংলাদেশে
আরও পড়ুন:  জাপানে আঘাত হানলো চীনা ক্ষেপণাস্ত্র

চীনের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক কোনওদিন সুদৃঢ় নয়। চিরকাল পাকিস্তানকে সাহায্য করে এসেছে লাল ফৌজের দেশ। এমনকি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময়ও তারা বঙ্গ বন্ধুর সরকারকে না মেনে তার খুনি ,মোস্তাক-জিয়া নেতৃত্বাধীন পাকিস্তানপন্থী সরকারকে স্বীকৃতি দিয়ে হত্যাকাণ্ডকে চাপা দেওয়ার চেষ্টায় লিপ্ত হয়েছিল বেজিং। চীন তবে এখন বাণিজ্যিক কারণে বন্ধুত্ত্বের হাত বাড়িয়েছে তারা। তোৰে সময়ের সাথে প্রকৃতপক্ষে দেউলিয়া দেশ পাকিস্তানকে ছেড়ে বাংলাদেশের দিকে নজর দিয়েছে চীন। বাংলাদেশের মন পেতে উদগ্রীব শি জিনপিংয়ের প্রশাসন।

মনে রাখতে হবে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং ২০১৬ সালের অক্টোবরে ঢাকা সফরে আসেন। সে সময় দুই দেশের মধ্যে ২৭টি চুক্তি ও সমঝোতা পত্রে সই হয়। চীনা বিদেশমন্ত্রীর ঢাকা সফরকালে এসবের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হবে। ৭ আগস্ট সকাল সাড়ে ৯টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে বসবেন ওয়াং ই। যখন চীনা বিদেশমন্ত্রী ঢাকায় পৌঁছাবেন, তখন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন কম্বোডিয়া থেকে ফেরার পথে থাকবেন। তাই বিমানবন্দরে স্বাগত জানাতে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশের বিদেশ প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

আরও পড়ুন:  চীনের বিমান লঙ্ঘন করল দেশের আকাশ

Featured article