29 C
Kolkata

এক চীন নীতি মেনে নিল বাংলাদেশ

ঢাকা: দক্ষিণ এশিয়া বেশ উত্তপ্ত। চীন আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে এগিয়ে চলেছে তাদের আধিপত্য বিস্তারের দিকে। তাইওয়ান ইস্যুতে আরও ঘোরালো অন্তর্র্জাতিক পরিস্থিতি। চীন তাদের সেনার মহড়া চালালো দ্বীপরাষ্ট্রটিকে ঘিরে। এই মহড়া চলে মার্কিন হাউস অব রিপ্রেসেন্টেটিভসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফরের পরেই। ইতিমধ্যে চীন বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার সাথে কূটনৈতিক স্তরে আলোচনার জন্য ব্যস্ত।

বস্তুত, বাংলাদেশ সফরে আছেন চীনের বিদেশ মন্ত্রী ওয়াং ই। রবিবার ওঁর সাথে নিজের বাস ভবনে বৈঠকে বসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানেই তাইওয়ান নিয়ে ঢাকার অবস্থান স্পষ্ট করে তিনি ‘এক চীন’ নীতি মেনে নিয়েছেন। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, কূটনৈতিক সমর্থন দিলেও কৌশলে চীনা ‘ঋণের ফাঁদ’ এড়িয়ে গিয়েছে ঢাকা।

রবিবার ওয়াং ই – শেখ হাসিনার বৈঠকে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ, নিষেধাজ্ঞা-অবরোধের কথাও উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, “এসব কারণে সারা বিশ্বের মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে তৈরি হওয়া চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে আমরা একসঙ্গে কাজ করতে পারি।” প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “বাংলাদেশ এক চীন নীতিতে বিশ্বাসী। বাংলাদেশ চীনের সঙ্গে তার বন্ধুত্বকে মূল্যায়ন করে।” একইসঙ্গে, যেসব বাংলাদেশি শিক্ষার্থী কোভিড-১৯ মহামারির সময় চীন থেকে দেশে ফিরে এসেছে, প্রধানমন্ত্রী তাদের পড়াশোনার জন্য ফিরে যাওয়ার পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্যও ওয়াং ই-কে অনুরোধ করেন। অপরদিকে চীন তাদের গ্লোবাল ডেভেলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভে (জিডিআই) যুক্ত হতে বাংলাদেশকে প্রস্তাব দিয়েছে বলে জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। চীনের এই প্রস্তাব খতিয়ে দেখা হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:  Imran Khan-Narendra Modi: মোদির স্তুতি ইমরানের মুখে

বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে একাধিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। তবে চীনের তৈরী ‘ঋণের ফাঁদ’ সকৌশলে এড়িয়ে গেছে হাসিনা সরকার। জানা গেছে, নতুন কোনও পরিকাঠামো তৈরি করতে বা প্রকল্পের সূচনা করতে এখনই বেজিংয়ের কাছ থেকে কোনও অর্থ নিতে রাজি নয় ঢাকা। দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তি প্রায় সবকটি চুক্তি শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক আদানপ্রদান সংক্রান্ত। সূত্রের খবর, চারটি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেছেন দু’দেশের বিদেশমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন এবং ওয়াং ই। ফলে এখন থেকে চীনের বাজারে প্রবেশে বাংলাদেশের ৯৯ শতাংশ পণ্য শুল্কমুক্ত হবে। রবিবার রাজধানী ঢাকার একটি হোটেলে এক বৈঠক শেষে বিদেশ প্রতিমন্ত্রী মহম্মদ শাহরিয়ার আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। এই বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়েও আলোচনা হয়েছে দুই দেশের মধ্যে বলে খবর।

আরও পড়ুন:  Russia-Ukraine War: ইউক্রেনের অধিকৃত অঞ্চলে গণভোট ঘোষণা পুতিনের

Featured article

%d bloggers like this: