18 C
Kolkata

মায়ের মৃতদেহ ফ্রিজে পুরে রাখলেন মেয়ে

নিজস্ব সংবাদদাতা : মানসিক বিপর্যয় নয়, সুনির্দিষ্ট কারণেই মায়ের মৃতদেহ ফ্রিজে পুরে রাখলেন মেয়ে। তাও আবার কয়েক দিন বা মাস নয়, টানা দশ বছর! রাজধানী টোকিওর বুকে এই ঘটনার সন্ধান মিলেছে।

জানা গিয়েছে, ইউমি এবং তাঁর মা টোকিওয় যে অ্যাপার্টমেন্টে থাকতেন, সেটি মিউনিসিপ্যালিটির অধীনে। মায়ের নামেই সরকারের থেকে লিজ নেওয়া ছিল। এ জন্য প্রতি মাসে ভাড়াও গুনতে হত। কিন্তু গত কয়েক মাস ধরে ওই বাড়ির ভাড়া জমা পড়েনি।

শেষমেশ এ মাসের মাঝামাঝি সময়ে বাড়ি ছাড়তে বলা হয় তাঁদের। বাড়ি খালি করে চলে যান ইউমি। এর পরে ওই অ্যাপার্টমেন্ট সাফাইয়ের কাজ শুরু হয়। তখনই ফ্রিজ খুলে উদ্ধার হয় মৃতদেহ! জানা যায়, দেহটি ইউমির মায়ের।

আরও পড়ুন:  Volcano: ৪০ বছর পর জেগে উঠেছে বৃহত্তম আগ্নেয়গিরি, টগবগিয়ে ফুটছে লাভা, বাড়ছে আতঙ্ক

স্থানীয় সূত্রের খবর, পরীক্ষা করে জানা গেছে, ৬০ বছর বয়সে মারা গেছেন ওই মহিলা। এখন ইউমির বয়স ৪৮। অর্থাত তিনি যখন ৩৮ বছর বয়সের তরুণী ছিলেন, তখনই তাঁর মা মারা যান এবং সেই থেকে মাকে ফ্রিজে রেখে দিয়েছেন তিনি!

দেহ পচে যাতে দুর্গন্ধ না ছড়ায়, সেজন্য সেটি ফ্রিজে ঢুকিয়ে রেখেছিলেন। পুলিশে খবর দিলে শুরু হয় তদন্ত। ইউমিকে জেরা করতে শুরু করেন তদন্তকারীরা। আর তাতেই প্রকাশ্যে আসে অদ্ভুত তথ্য। ইউমি পুলিশের কাছে ভেঙে পড়া জানান, দশ বছর আগেই তাঁর মা মারা গেছিলেন।

কিন্তু যেহেতু বাড়িটি মায়ের নামে লিজ নেওয়া ছিল, তাই মৃত্যুর কথা জানাজানি হলে বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে হতো তাঁকে। এই ভয়েই তিনি কাউকে কিছুই জানাননি। এমন ভাবে থাকতেন, যেন মা বাড়িতেই রয়েছেন।

আরও পড়ুন:  China: ভারত মহাসাগরে চিনা বাহিনী ঢুকতে পারে, উপগ্রহ চিত্র দিয়ে সতর্ক করল আমেরিকা

Featured article

%d bloggers like this: