28 C
Kolkata

হাজার রকেটের হামলায় মৃত প্রায় ৫১

গাজা: চারিদিকে লড়াইতে জর্জরিত সারা বিশ্ব। যুদ্ধ এখন পৌঁছে গেছে মধ্য প্রাচ্যে। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া সংঘর্ষ শুরু হয়েছে গাজা ভূখণ্ডে। সূত্রের খবর বেশ কয়েকটি শিশু-সহ কমপক্ষে ৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে এই সংঘর্ষে। ইজরায়েল সেনাবাহিনীর দাবি মৃতের মধ্যে ২৪ জন সন্ত্রাসবাদী।

‘ইজরায়েল ডিফেন্স ফোর্সেস’-এর ফাইটার জেট, শুক্রবার গাজা ভূখণ্ডে প্যালিস্তিনীয় জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক জেহাদের ঘাঁটিতে পর পর বোমা ফেলে। হামলায় ইসলামিক জেহাদের এক শীর্ষ কমান্ডার-সহ মৃত্যু হয় দশজনের। চলতি সপ্তাহেই গাজায় গ্রেপ্তার হয়েছে এক জঙ্গি নেতা। তারপর থেকেই ইজরায়েল জঙ্গিদের বিরুদ্ধে আক্রমণের ব্যবস্থা করতে থাকে। গাজায় যাওয়ার দু’টি ক্রসিং বন্ধ করে দেয় তারা। গাজা সীমান্ত লাগোয়া নাগরিকদের যাতায়াত করা নিয়ে হুঁশিয়ারিও দিয়েছে ইজরায়েলি সরকার। ওই হামলার পর ইসলামিক জেহাদের তরফ থেকে জানানো হয়, ইজরায়েলের হামলায় তাদের কমান্ডার তায়সির আল জাবারি নিহত হয়েছে।

আরও পড়ুন:  পৃথিবীর সামনে কিসের বিপদের কথা বললেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের সেক্রেটারি জেনেরাল
আরও পড়ুন:  মানুষেরই নতুন প্রজাতির খোঁজ মিলল ফিলিপিন্সের গুহায়

ইজরায়েলের সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে খবর, জাবারির মৃত্যুর পর ইজরায়েলে ১ হাজারেরও বেশি রকেট ছুঁড়েছে ‘ইসলামিক জেহাদ’। তারমধ্যে ২০০টি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে গাজা ভূখণ্ডেই আছড়ে পড়ে। ফলে প্রাণ হারিয়েছেন ১৬ জন সাধারণ মানুষ। সংঘর্ষে আরও ১১ নিরীহ মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলেও জানিয়েছে ইজরায়েলের সেনা। পালটা, গাজা ভূখণ্ডে ইসলামিক জেহাদের ১৭০টি ঘাঁটিতে বিমান হানা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ‘ইজরায়েলি ডিফেন্স ফোর্সেস’।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের মে মাসে জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদে ইহুদি ও মুসলিম সম্প্রদায়ের অনুগামীদের মধ্যে সংঘাত শুরু হয়। তারপর তা ক্রমে ভয়াবহ আকার নেয়। রমজানের নমাজ পড়তে জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদে জড়ো হয়েছিলেন হাজার হাজার মুসলমান। সেখান থেকেই সংঘাতের সূত্রপাত। তারপর প্রায় ১১ দিন ধরে হামাস ও ইজরায়েলী সেনাবাহিনীর মধ্যে যুদ্ধ হয়। ওই সংঘর্ষে ২৫৬ জন প্যালেস্তানীয়র মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন:  ভারতকে কোনও বার্তা দেয়নি আমেরিকা
আরও পড়ুন:  আংশিক সৈন্য সমাবেশের ঘষোণা পুতিনের

Related posts:

Featured article

%d bloggers like this: