24 C
Kolkata

UNSC আতঙ্কবাদীর হাতে রাষ্ট্রপুঞ্জ

কিয়েভ: ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এক বিশাল অভিযোগ আনেন। তিনি বলেন যে যুদ্ধরত পুতিন একজন আতঙ্কবাদী। এই অভিযোগ আসে ইউক্রেনের ক্রেমেনচুক শহরে এক শপিং মলে রাশিয়া মিসাইল হানা করার পর। শোনা যাচ্ছে সেই মলে তখন ১০০০ এর বেশি লোক ছিল। অন্তত ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে তাতে।

রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের কাছে এক ভিডিও মেসেজ পাঠান জেলেনস্কি। তিনি বলেন যে সর্বশক্তি দিয়ে রাশিয়ার হত্যালীলা আটকাতে হবে। তিনিযোগ করলেন যে ক্রেমলিনের ওপর বিচার করা দরকার যত তারা তারই সম্ভব। এতে ইউরোপিয়ান এশিয়ান দেশগুলি, যেমন বাল্টিক রিপাবলিক, পোল্যান্ড, মলডোভা এবং কাজাখস্তান, এদের উপর যাতে কোনও ভাবে হামলা আটকানো যাবে।

রাশিয়া শপিং মলে মিসাইল হামলার কথা অস্বীকার করেছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে জেলেনস্কি রাষ্ট্রপুজোকে অনুরোধ করেছে যাতে সেখান থেকে কোনও সদস্য ইউক্রেনে এসে ঘটনার সত্যতা যাচাই করে নেয়।

আরও পড়ুন:  কখনও অট্টহাসি কখনও আর্তনাদ! আজও এই শহর জুড়ে ঘুরে বেড়ায় অতৃপ্ত আত্মারা

জেলেনস্কির মতে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট আতঙ্কবাদী হয়ে উঠেছেন। “সপ্তাহের সাত দিনই সন্ত্রাসীরা হামলা করে। তারা প্রতিদিন সন্ত্রাসী হিসেবে কাজ করে।”

জেলেনস্কি ইউ এন চার্টারের অনুচ্ছেদ ৬ উদ্ধৃত করেছেন। সেই অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে যে একজন সদস্য যে “বর্তমান চার্টারে বিদ্যমান নীতিগুলি ক্রমাগতভাবে যে লঙ্ঘন করবে তাকে নিরাপত্তা পরিষদের সুপারিশের ভিত্তিতে জেনারেল কাউন্সিল দ্বারা সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হতে পারে।”

কিন্তু এটি হওয়ার সম্ভাবনা বেশ কম কারণ রাশিয়া জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য এবং ভেটো ক্ষমতা রয়েছে।

একটি বিধান যা নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচটি ভেটো-চালিত সদস্যের মধ্যে কেউ যদি তাদের কর্তৃত্ব ব্যবহার করে একটি রেজুলেশন বাধাগ্রস্ত করে তাহলে তা অবিলম্বে সাধারণ পরিষদের সভা ডাকবে।

আরও পড়ুন:  Earthquake: ইন্দোনেশিয়ার পর কেঁপে উঠল সলোমন দীপপুঞ্জ, জারি সুনামি সতর্কতা

Featured article

%d bloggers like this: