33 C
Kolkata

Russia-Ukraine: প্রথম যুদ্ধাপরাধী ঘোষণা ইউক্রেন সরকারের

কিয়েভ: যুদ্ধ বিরতি ঘোষণার পরও হামলা অব্যাহত। এমন অভিযোগ এনেছে ইউক্রেন প্রশাসনই। তবে কাউকে যুদ্ধাপরাধী হিসেবে ঘোষণা করা হয়নি। ইউক্রেনীয় গ্রামবাসীকে খুন করার অপরাধে রুশ ট্যাঙ্ক রেজিমেন্টের এক সেনার যাবজ্জীবন ঘোষণা করল জেলেনস্কির সরকার। ৮৯ দিনের রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধে এই প্রথম যুদ্ধাপরাধী হিসেবে সাজা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রুশ বাহিনীর ওই সার্জেন্টের নাম ভাদিম শিসিমারিন (২১)। তাঁর বিরুদ্ধে উত্তর-পূর্ব ইউক্রেনের সুমি অঞ্চলের একটি গ্রামে এক অসামরিক নাগরিককে মাথায় গুলি এবং হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে। ইউক্রেন সেনার পাল্টা হামলার সময় ধরা পড়েন ভাদিম। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিতও হয়েছে। আদালতে বিচারপর্বের সময় অসামরিক নাগরিককে খুনের অভিযোগ স্বীকার করেছেন ভাদিম। অভিযুক্তর দাবি, ‘ঊর্ধ্বতন সেনা আধিকারিকের নির্দেশ পালন করেছিলেন তিনি। ঘটনার সময় ওই গ্রামবাসী মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন। সে সময় আমাদের কমান্ডার আশঙ্কা করেছিলেন, ওই অসামরিক ব্যক্তি আমাদের অবস্থান ইউক্রেন সেনাকে জানিয়ে দিচ্ছেন। তাই তাঁকে গুলি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।’

আরও পড়ুন: 
আরও পড়ুন:  Stranger Things: কোন চরিত্রের মৃত্যু হতে পারে Stranger Things 5-এ

এদিকে যুদ্ধ থামার কোনও ইঙ্গিতই যেন মিলছে না। সোমবার ইউক্রেনের পাশে দাঁড়ানো অন্তত ৪৮টি দেশ এবং সংগঠন ভার্চুয়াল মাধ্যমে মিলিত হয়েছিল। পরিভাষায় এই জোটের নাম ‘ইউক্রেন ডিফেন্স কন্ট্যাক্ট গ্রুপ’।  আরও ২০টি দেশ ইউক্রেনকে অস্ত্রশস্ত্র, গোলা-বারুদ দেওয়ার ব্যাপারে উৎসাহ দেখিয়েছে। ইউক্রেনের পূর্ব এবং দক্ষিণ দিকে নিজেদের কব্জা প্রতিষ্ঠা করে ফেলেছে রাশিয়া। কিন্তু এখনও দুর্ভেদ্য রাজধানী কিয়েভ। সহায়তার বার্তা দিয়েছে আমেরিকাও। যদিও রুশ সেনার যাবজ্জীবন নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি পুতিন সরকারের পক্ষে। আন্তর্জাতিক মহল বলছে, পেটের দায়ে লড়াই করতে নামে রুশ সেনারা। তাদের ঠিক মতো খাদ্যদ্রব্য সরবরাহ করা হচ্ছে না বলেও আগেই অভিযোগ উঠেছে।

Featured article

%d bloggers like this: