28 C
Kolkata

নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম মহিলার শরীর

কলম্বো: নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম আকাশ ছোঁয়া। একই অবস্থা ওষুধের বাজারেও। মানুষের হাতে টাকা নেই। কর্মসংস্থানেও নেই। বয়ন শিল্প প্রায় বন্ধ। সেখানে বেশিরভাগ কর্মী মহিলা। তারা কাজ খুইয়ে বাড়িতে বসে। পরিবার চলবে কি করে? দেশের এরকম নাজেহাল অবস্থায় প্রধামন্ত্রী রাষ্ট্রপতি সবাই দেশ ছেড়ে চলে যায়। ক্ষুধা তৃষ্ণায় কাতর দেশের নাগরিকরা পড়ে থাকে চাতকের মত দেশের হাল ফেরার অপেক্ষায়।

শ্রীলংকার বস্ত্র শিল্প পড়েছে সংকটে। অধিকাংশ বরাত চলে যাচ্ছে ভারত বা বাংলাদেশে। এই সংকটের সময় মহিলা কর্মীরা বেছে নিলো পৃথিবীর প্রাচীনতম পেশা।স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের একাধিক রিপোর্ট বলছে, শ্রীলঙ্কার মুদির দোকান থেকে সাধারণ সামগ্রী কিনতে ‘যৌনদাসী’ হিসেবে তুলে ধরছেন মহিলারা। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে শরীর বিক্রি করছেন তাঁরা। কয়েক মাসেই দ্বীপরাষ্ট্রের রাজধানী কলম্বোর অলিতে গলিতে গজিয়ে উঠেছে অনেক মধুচক্রের আড্ডা।

আরও পড়ুন:  Indian Rupee : ক্রমশ পতনের পথে ভারতীয় মুদ্রার দাম

বস্ত্রশিল্পের সঙ্গে যুক্ত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মহিলা কর্মী জানাচ্ছেন, “বস্ত্রশিল্পের সঙ্গে যুক্ত থাকলে মাসে ২৮ হাজার বেতন পাই। সর্বোচ্চ ৩৫ হাজার টাকা বেতন পেতাম। কিন্তু দেহব্যবসায় প্রতিদিন গড়ে ১৫ হাজার টাকা আয় করি। অনেকেই আমার সঙ্গে হয়তো একমত নাও হতে পারেন।” তিনি আরও বলছেন, “পরিবার চালাতে বিকল্প পেশা খোঁজা ছাড়া আর উপায় ছিল না। দোকান থেকে জিনিস কিনতে গেলে বহু মহিলাকে সঙ্গমে বাধ্য করা হচ্ছে। তাই এই দুর্বলতাকেই আমরা হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছি।”

আরও পড়ুন:  South Africa: এই ট্রেনে পরিষেবা করলে মিলবে না গন্তব্যে যাওয়ার সুবিধা, কিন্তু চাইলে উঠতেই পারেন

Featured article

%d bloggers like this: