28 C
Kolkata

Bathing in winter season:শীতকালে স্নানের সময় এই বিষয়গুলি অবশ্যই মাথায় রাখবেন

নিজস্ব সংবাদদাতা:শীতে বেশির ভাগ মানুষেরই স্নান করা নিয়ে বিশেষ অনীহা থাকে। এই সময়ে অনেকেই গরম জলে স্নান করে থাকে। তবে গরম জলে স্নান করার সবার শরীরের পক্ষে ঠিক না। যাদের শরীরে ব্যথা থাকে তাদের ঠাণ্ডা জলে স্নান করারই ভাল। কারণ গরম জল চুল আর ত্বকের বেশ ক্ষতি করে।

প্রতিদিন গরম জলে স্নান করার ফলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। সাধারণ কিছু ভুল আছে যে গুলি শীতে স্নান করার সময়ে প্রায় সকলেই করে থাকে। এর কারণে শরীরে অ্যাকজিমা, সোরিয়াসিস ও শুষ্ক ত্বকের মতো চর্মরোগ হতে পারে। তাই স্নান করার সময়ে কয়েকটি জিনিস আপনার মাথায় রাখা দরকার। শীতকাল মানেই ঠাণ্ডা লাগা কিংবা ত্বকের সমস্যা থাকবেই। তবে শরীর পরিষ্কার রাখতে নিয়মিত স্নান করা দরকার।

আরও পড়ুন:  Aparajita Flower: মাত্র দুটি উপায়ে মিলবে আপনার বাস্তু সংক্রান্ত সমস্ত সমস্যার সমাধান....
আরও পড়ুন:  Diet Food : ওজন কমানোর জন্য ব্রেকফাস্ট রেসিপি

শীতে যেহেতু একটু বেশি খাওয়া দাওয়া হয়ে থাকে তার উপর আবার সারাক্ষন গরম জামা কাপড় থাকে শরীরে, ফলে নিয়মিত স্নান না করলে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়তে পারে। শীতে দিনের পর দিন গরম জলে স্নান করলে ত্বক থেকে প্রাকৃতিক তেল বের হয়ে যায়। আর আপনার যদি অ্যাকজিমা বা সোরিয়াসিসের মতো চর্মরোগ থেকে থাকে তাহলে ৫ থেকে ১০ মিনিটের মধ্যেই স্নান সেরে ফেলা ভাল। স্নান করার সময়ে কোন সাবান ব্যবহার করছেন সেটাও মাথায় রাখতে হবে। কারণ আপনার ত্বকের জন্য যদি ঠিক না হয় তাহলে সমস্যার কারণ হয়ে উঠতে পারে।

অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যাকটেরিয়ার উপশমে ভাল। আপনার যদি অ্যাকজিমা বা ত্বকের সংবেদনশীলতা থাকে, তবে বেশি সুগন্ধযুক্ত সাবান ব্যবহার না করাই ভাল। স্নান করার পর অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। স্নান করে বের হয়ে সঙ্গে সঙ্গে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন না। ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করার আগে শরীর ভাল করে মুছে শুকনো করে নিতে হবে। তারপর সারা শরীরে ভাল করে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিতে হবে।

আরও পড়ুন:  ওজনে ৩০ লক্ষ হাতির সমান পিঁপড়ে, কোথায় আছে জানেন ?
আরও পড়ুন:  Aparajita Flower: মাত্র দুটি উপায়ে মিলবে আপনার বাস্তু সংক্রান্ত সমস্ত সমস্যার সমাধান....

Related posts:

Featured article

%d bloggers like this: