28 C
Kolkata

Soyabean:হাড়ের ক্ষয়জনিত সমস্যাকে দূর করে সয়াবিন

নিজস্ব সংবাদদাতা-সয়াবিন নিঃসন্দেহে প্রোটিনের একটি ভালো উত্‍স, তবে সয়াবিন বেশি পরিমাণে খেলে স্বাস্থ্যের ক্ষতিও হতে পারে। এটি বেশি খেলে অ্যালার্জির সমস্যা হতে পারে। তবুও এটি অত্যন্ত উপকারী। এক পরিসংখ্যান বলছে, নারীরা সপ্তাহে ৩ দিন ৩০ থেকে ৫০ গ্রাম সয়াবিন খেতে পারেন।এতে হাড় শক্ত হয়। অস্টিওপোরোসিসের মতো হাড়ের ক্ষয়জনিত সমস্যাকে দূর করবে। পুরুষরা প্রতিদিন ৭০ গ্রাম সয়াবিন খেতে পারেন। আর কি কি উপকারিতা রয়েছে জানুন-

১)সয়াবিন খাওয়া ডায়াবেটিসেও উপকারী বলে প্রমাণিত। এতে পাওয়া প্রোটিন গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ করে এবং ইনসুলিন বাধা প্রাপ্ত হয়। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, নারীদের অবশ্যই তাদের খাদ্যতালিকায় সয়াবিন অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। একটা বয়সের পরে, নারীদের অস্টিওপোরোসিস রোগ হয়। এতে তাদের ঘাড় ব্যথা, কোমর ব্যথা, মেরুদণ্ডের ব্যথার মতো সমস্যায় পড়তে হয়। সয়াবিন খেলে তাদের অস্টিওপোরোসিস প্রতিরোধ করা যায়। তবে, গর্ভাবস্থায় চিকিত্‍সকের পরামর্শ নিয়েই সয়াবিন খাওয়া উচিত।

আরও পড়ুন:  Gift Ideas for Festive Season: এই পুজোর মৌসুমে জীবনসঙ্গীকে কিভাবে খুশি করবেন ভাবছেন! দেখে নিন এক নজরে কিভাবে খুশি হবে আপনার জীবনসঙ্গী
আরও পড়ুন:  Durga Chatu: দুগ্গাছাতুর উপকারিতা

২)বিশেষজ্ঞদের মতে, সয়াবিন মানসিক ভারসাম্য ঠিক করে ও বুদ্ধির বিকাশ ঘটায়। এটি খেলে প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন, আয়রন, ফসফরাস, কপার, ম্যাগনেসিয়াম এবং জিঙ্কের মতো পুষ্টি উপাদান পাবেন। যেগুলো যেকোনো মানবদেহের জন্য অপরিহার্য।

৩)সয়াবিনে আছে আইসোফ্ল্যাভেন ও লেসিথিন। দু’টিই জোরালো অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট। এগুলো লো ডেনসিটি কোলেস্টেরলের মাত্রা স্বাভাবিক রাখতে সাহায্যে করে। এলডিএল অর্থাত্‍ লোডেনসিটি কোলেস্টেরল অত্যন্ত ক্ষতিকারক।

৪)সয়াবিনের আইসোফ্ল্যাভেন অত্যন্ত জোরালো ফাইটো ইস্ট্রোজেন। ত্বক ও চুল উজ্জ্বল ও ঝকঝকে রাখতে এই যৌগ সাহায্য করে। সয়াবিনে থাকা লেসিথিন রক্তচাপ স্বাভাবিক রেখে হার্ট ও মস্তিষ্ককে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল রাখতে সাহায্য করে। এতে অকালবার্ধক্য থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৫)সপ্তাহে তিন দিন ৫০ মিলিগ্রাম করে সয়াবিন খেলে এইচডিএল এবং এলডিএলের ভারসাম্য রক্ষা হয়। ফলে হৃদরোগের আশঙ্কা কমে। ব্রিটিশ জার্নাল অব নিউট্রিশনে প্রকাশিত এক রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, খাবার পরিপাকের সময় সয়া-প্রোটিন নামে এক যৌগ তৈরি হয়, যা কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্যে করে। সয়া-ফাইবার রক্তের ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা স্বাভাবিক রাখে।

আরও পড়ুন:  মানুষেরই নতুন প্রজাতির খোঁজ মিলল ফিলিপিন্সের গুহায়
আরও পড়ুন:  Gift Ideas for Festive Season: এই পুজোর মৌসুমে জীবনসঙ্গীকে কিভাবে খুশি করবেন ভাবছেন! দেখে নিন এক নজরে কিভাবে খুশি হবে আপনার জীবনসঙ্গী

Related posts:

Featured article

%d bloggers like this: