24 C
Kolkata

T-bags using too much can be damage :টি- ব্যাগের ব্যবহার করতে পারে ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিবেদন : প্রতিদিন এক কাপ চা নাহলে হয় নাকি সারাদিনে। অনেকের তো আবার ঘন্টায় ঘন্টায় চা দরকার হয়। চায়ে ক্যাটেচিন, ক্যাফেইন, এল-থিয়ানাইন এই তিন বায়ো অ্যাকটিভ উপাদান থাকে যা শরীরকে সতেজ রাখে। এছাড়া হার্ট অ্যাটাক, দুর্বল হাড়, দাঁতের ক্ষয়, হজমের সমস্যা দূর করে।ব্যস্ততার মধ্যে আর সময় হয় না চা বানিয়ে খাওয়ার। তবে যদি একটু গরম জল আর একটা টি -ব্যাগ থাকে হাতের সামনে চট জলদি তৈরি করে নেওয়া যায় চা। কিন্তু জানেন কি! টি-ব্যাগের অতিরিক্ত ব্যবহার ডেকে আনতে পারে শরীরের নানা ক্ষতি।

টি-ব্যাগে এপিক্লোরোহাইড্রিন নামের কারসিনোজেন বা ক্যানসার তৈরি করা উপাদান থাকে। জলে টি-ব্যাগ ছাড়ার পর এই উপাদান সক্রিয় হয়ে উঠে। অবশ্য টি-ব্যাগের একাধিক কাপ চা পান করলে তেমন ক্ষতি হয় না। তবে নিয়মিত টি-ব্যাগ দিয়ে চা পান করলে শরীরের জন্য তা বড় ধরনের ক্ষতি করতে পারে। অনেক টি-ব্যাগ নাইলন বা প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি করা, যা ক্যানসার সৃষ্টির জন্য দায়ী।

অনেক ক্ষেত্রে টি-ব্যাগের ভেতরে মাটি ও ছোট পোকার অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। তাই যেহেতু আপনি জানেন না টি-ব্যাগের ভেতর কি আছে, তাই তা এড়িয়ে চলা ভালো। ব্ল্যাক বা গ্রিন চায়ে নির্দিষ্ট গন্ধ থাকে, কিন্তু টি-ব্যাগে ডাস্ট ও অন্য কেমিক্যাল থাকে বলে তা চায়ের স্বাদ তেতো করে দেয়। গ্রিন টি ওজন কমায়, এটা অনেকটা পরীক্ষিত। তবে গ্রিন টি-ব্যাগের চা পান করে আশানুরূপ ফল পাওয়া যায় না। কারণ টি-ব্যাগে গ্রিন টি প্রক্রিয়াজাত করার কারণে এটি তার অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, নিউট্রেশন হারায়। তাই গ্রিন টি-ব্যাগ ব্যবহার করে চা পান করে আপনি কোনো ভালো ফলই পাবেন না। তাই গ্রিন টি-ব্যাগ এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেন। শুধু গ্রিন টি-ব্যাগই নয় অন্য সব টি-ব্যাগও যথাসম্ভব এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন:  Perfectly Boil Eggs: তাড়াহুড়োতে ডিম সেদ্ধ করতে গিয়ে কি ফেটে যায়? রইল সমাধান…

Featured article

%d bloggers like this: