28 C
Kolkata

WB Civic Polls 2022 : শনিবার পুর ভোটের আগে আঁটোসাঁটো নিরাপত্তা, আগ্নেয়াস্ত্র সহ ২ দুষ্কৃতী গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতা : রাত পোহালেই ভোট আসানসোল, শিলিগুড়ি, বিধাননগর এবং চন্দননগর পুরসভায়। এর মধ্যে বিধাননগরের দিকে বিশেষ নজর রয়েছে নির্বাচন কমিশনের। সেই কারনেই বিধাননগরের প্রতিটি প্রবেশ পথে চলছে কড়া নাকা চেকিং। বিধাননগরে প্রবেশ করতে চাওয়া যেকোনও গাড়ি তা যাত্রীবাহী হোক অথবা পণ্যবাহী সকল গাড়িকেই পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তল্লাশি করা হচ্ছে এই সব নাকা চেকিংগুলিতে।

যাত্রীবাহী গাড়ির ক্ষেত্রেও গাড়ির চালকের ছবি তুলে রাখা হচ্ছে এই নাকাগুলিতে। বিধাননগর ট্রাফিক পুলিসের কর্মীরা রয়েছেন এই নাকা চেকিং-এ। নাকাতে দাঁড়ানো প্রতিটি গাড়ির ডিকি খুলে তল্লাশি করা হচ্ছে। এছাড়াও ভেতরে কোনও সামগ্রী থাকলে তার বাঁধন খুলে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। এরপরে যাত্রীদের বিধাননগরে প্রবেশ কারণ জানতে চাওয়া হচ্ছে। যুক্তিপূর্ণ কারণ থাকলেই তবেই তাদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে।

নাকা চেকিংয়ের সময়ই আগ্নেয়াস্ত্র সহ ২ দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করল পুলিস। বৃহস্পতিবার রাতে যখন লেকটাউন থানার পুলিস নাকা চেকিং করছিল, ঠিক সেই সময় ২ জন যুবক বাইকে করে আসছিল। সন্দেহ হওয়ায় তাদেরকে আটকায় পুলিস। তল্লাশিতেই উদ্ধার হয় আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি। এরপরই অভিযুক্ত ২ জনকে গ্রেফতার করে পুলিস। ধৃতদের একজনের নাম তন্ময় মুখার্জি। অন্যজনের নাম সোমনাথ পাল। ২ জনেই কাঁকুড়গাছি এলাকার বাসিন্দা। গোলাঘাটাতে নাকা চেকিংয়ের সময় তাদের গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ এক রাউন্ড গুলিও উদ্ধার করেছে পুলিস। ভোটের আগে কী উদ্দেশ্যে ওই ২ দুষ্কৃতী রাতে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঘোরাফেরা করছিল, খতিয়ে দেখছে পুলিস।

আরও পড়ুন:  Kurmi Protest: ৯৬ ঘন্টা স্তব্ধ জাতীয় সড়ক
আরও পড়ুন:  Robbery: সিনেমা এবার বাস্তবের মাটিতে, তবে সেটা কিন্তু ডাকাতি

এদিকে পুরভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী চেয়ে মামলা দায়ের হয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টে৷ যদিও সেই মামলা খারিজ করে দেয় আদালত৷ পুরভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী প্রয়োজন কি না, সেই সিদ্ধান্ত কমিশনের উপরেই ছেড়েছিল হাইকোর্ট৷ পাশাপাশি পুরভোটের নিরাপত্তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে রাজ্য পুলিশের ডিজি, মুখ্যসচিব সহ রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক করার জন্য রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছিল আদালত৷

সেই মতোই বৃহস্পতিবার রাজ্য পুলিশের ডিজি, মুখ্যসচিব সহ প্রশাসনের শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে করেন নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাস৷ সূত্রের খবর, বৈঠকে কমিশনার স্পষ্ট বার্তা দিয়েছেন, নিরাপত্তা নিয়ে কোনও আপোস করা হব না৷ প্রয়োজনে অতিরিক্ত বাহিনীও প্রয়োজন করা হবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন কমিশনার৷ ভোটের সময় কোনওভাবেই অশান্তি বরদাস্ত করা হবে না বলেও জানিয়েছেন কমিশনার৷

আরও পড়ুন:  Fire: বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড বোলপুরের বেসরকারি ব্যাংকে, রয়েছে কেষ্ট'র অ্যাকাউন্ট
আরও পড়ুন:  NIA-ED Raid: যৌথ অভিযানের পরই অমিত শাহর সঙ্গে বৈঠক আধিকারিকদের

Related posts:

Featured article

%d bloggers like this: