34 C
Kolkata

DILIP GHOSH BJP EXCLUSIVE: ”দিলীপ ঘোষ কারওর সমালোচনাক ভয় করে না”, সরাসরি সাক্ষাৎকারে অকপট দিলীপ ঘোষ

শ্রাবণী পাল: নববর্ষে বাঙালিয়ানা। হাজারো ব্যস্ততার মধ্যে ধুতি-পাঞ্জাবি পরে দলের সঙ্গে নতুন বছরের আগমন অনুভব করেছেন। কী-খবরের মুখোমুখি হলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সকলকে শুভ নববর্ষ জানান তিনি। মুখে হাসি ছিল শুরু থেকেই। রাজ্যের একাধিক ইস্যু নিয়ে গাম্ভীর্য-ও চোখে পড়েছে। একাধিক প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন তিনি।

প্রশ্ন: নববর্ষ কেমন কাটল?
উত্তর: কাজের মধ্যে কাটে প্রত্যেক বছর। এবার কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে ভালোই কেটেছে। অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলাম। ভালোভাবেই কেটেছে।

প্রশ্ন: রাজ্যে একাধিক ইস্যু নিয়ে বিতর্ক বেঁধেছে। এই মুহূর্তে পরিস্থিতি কেমন আপনার চোখে?
উত্তর: পরিস্থিতি সবাই দেখতে পাচ্ছে। এমন ঘটনা ঘটছে যা প্রতি মুহূর্তে মনকে বিষণ্ণ করে তুলছে। সবাই দেখতে পাচ্ছে। হাঁসখালিতে ছোট্ট একটা মেয়ের উপর নির্যাতন হল। এই তো হচ্ছে রোজ। সরকার তাও কিছুই করছে না। বিরোধী হিসেবে আমরা প্রতিবাদ করব।

প্রশ্ন: অনেকে বলছে বিজেপি আশানুরূপ ফল করতে না পেরে রাস্তায় বের হচ্ছে না। এদিকে সজল ঘোষ রাজভবন অভিযানে গেলে তাঁকে পুলিস গাড়িতে তুলছে। বিরোধীদের পরিস্থিতি কী এই রাজ্যে?
উত্তর: বিরোধীদের মুখ বন্ধ করার চেষ্টা চলছে। বিজেপি রাস্তায় ছিল, নামছে আর নামবে। আমরা কাউকে ভয় পাই না। রাজ্যে যতদিন অন্যায় চলবে, আমরা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করব। কেউ আটকাতে পারবে না। পুলিস বা প্রশাসন কেউ কিছু করতে পারবে না। মানুষ প্রধান বিরোধী দল হিসেবে জায়গা দিয়েছেন আমাদের। সেই জায়গার সম্মান করি। তাঁদের জন্যে বিজেপি গলা তুলবে।

আরও পড়ুন:  palvov Hospital: পাভলভ হাসপাতাল নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য এল প্রকাশ্যে
আরও পড়ুন:  PM Modi Paigambar Issue: পয়গম্বর বিতর্ক থেকে সরকারকে বাঁচাতে আমিরশাহী যাচ্ছেন মোদী?

প্রশ্ন: আপনারা রাজ্য পুলিসে ভরসা রাখেন না। প্রশাসন সিবিআইয়ের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছে। মানুষ বিচার পাবে কীভাবে?
উত্তর: দেখুন, আমরা চাই মানুষ বিচার পাক। রাজ্যের বিভিন্ন ঘটনা খতিয়ে দেখুন। একাধিক জায়গায় পুলিসের যোগ রয়েছে। আমরা শুধু বলছি না। মানুষ নিজে পুলিসের উপর ভরসা রাখতে পারছে না। যাদের সঙ্গে নারকীয় ঘটনা ঘটেছে, তাঁদের জিজ্ঞেস করুন। সবাই চাইছে সিবিআই তদন্ত হোক। মানুষের কথা যাতে রাখা হয়। আমরা সেদিকে ফোকাস করছি মাত্র।

প্রশ্ন: মুখ্যমন্ত্রী বগটুই কাণ্ডে নিজে গিয়েছিলেন। মৃতদের পরিবারকে নিজের হাতে অর্থ তুলে দিয়েছেন। তাও আপনারা খুশি নন কেন?
উত্তর: উনি কী করছেন? টাকা দিলেই হয়ে গেল? নেতাদের টাকা খাওয়াচ্ছেন। আর তা দিয়ে মানুষের মুখ বন্ধ করার চেষ্টা করছেন। এসব করে কিছু হবে না সেটা উনি বুঝতে পারছেন না। সবাই সবটা বুঝে গেছে। এখন আর এসব করে কিছু লাভ নেই। টাকা দিয়ে সবার মুখ বন্ধ করানো যাবে না। সবাই ওঁর দলের নেতা-নেত্রী নয়। স

প্রশ্ন: পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সিবিআই তলব করল। কিন্তু আদালতের কাছে স্বস্তি পেয়ে গেলেন। এই ঘটনাকে কীভাবে দেখবেন?
উত্তর: (আদালতের বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে না চেয়ে) আদালত সম্পূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখানে আমার কিছু বলার নেই। কিন্তু নাম যখন এসেছে তখন কিছু তো নিশ্চই ছিল। ওঁর (পার্থ চট্টোপাধ্যায়) হাজিরা দিতে তা না হলে এতো সমস্যা হতো না। দিলীপ ঘোষ কড়া ভাষায় কথা বলে বলে অনেকেই সমালচনা করে। কিন্তু সত্যিটা এভাবেই বলব।

আরও পড়ুন:  UP by polls: স:পা: খেলো জোর ধাক্কা

প্রশ্ন: নিজেই বলছেন আপনি কড়া ভাষায় কথা বলেন। যা বাকি অনেকের থেকেই আলাদা। সমালোচনা যে হয়, তাতে কিছু যায় আসে না?
উত্তর: দু’একটা লোক যদি ঘরে বসে জ্ঞান দেয় তাহলে দিলীপ ঘোষের কিছু যায় আসে না। সাধারণ মানুষের প্রতি নিপীড়ন হচ্ছে। কেউ এগিয়ে আসে না প্রতিবাদ করতে। আমি এভাবেই প্রতিবাদ জানাই। আর জানাবও। অত্যাচারকারীদের বিরুদ্ধে আমি এই ভাষাই প্রয়োগ করব। যারা দাস হয়ে বসে আছেন, আমি কিছু আশা করি না তাদের থেকে। সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ আমার মুখ থেকে আমি এভাবেই বলব। দিলীপ ঘোষ অত্যাচারিতদের পাশে থাকবে। আর বিজেপি রাস্তাতেই থাকবে।

আরও পড়ুন:  Debangshu Bhattacharya: ক্ষিপ্ত দেবাংশু

Featured article