18 C
Kolkata

ABHISHEK BANERJEE: অভিষেকের মন্তব্যকে ‘ইগনোর’ কল্যাণের

নিজস্ব সংবাদদাতা: অভিষেক কল্যাণ ‘মতবিরোধ’ আবার শীর্ষে। রাজনীতির রণক্ষেত্রে শুধু বিরোধীদের লড়াই নয়, এবার লড়াই চলছে দলের অন্দরেও। একদিকে যেমন পুরনো বনাম নতুন বিজেপির ‘লড়াই’ চলছে, এদিকে আবার কল্যাণ বনাম অভিষেকের লড়াই আর থামছেই না। অভিষেকের সাক্ষাৎকারের মন্তব্যকে ‘ইগনোর’ করার পক্ষপাতী বলেই মনে করছেন কল্যাণ।

অনেকেই মনে করেন, পুরভোট পিছিয়ে যাওয়ার পেছনে অনেকটা কারণ অভিষেকের সেই ‘ব্যক্তিগত মতামত’। একটি সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। সেই সাক্ষাৎকারে তিনি সরাসরি আক্রমণ শানান শ্যামনগরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। অভিষেক বলেন, ”কল্যাণ বলেছেন উনি অভিষেককে মানেন না। শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা শুনবেন। আমি বলছি কেন মানবেন আমায়? আমি তৃণমূলের তুচ্ছ একজন কর্মী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমিও নেত্রী হিসেবে মানি। উনি (কল্যাণ) বলছেন আমি জিতে এলে মানবেন। আমি বলবো, আমায় তখনও মানতে হবে না।”
এর আগে কবি শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি কবিতার কিছু পঙক্তি হাইলাইট করে পোস্ট করেছিলেন কল্যাণ। সেখানে লেখা ছিল, ‘তুমিও মানুষ আমিও মানুষ/ তফাত্ শুধু শিরদাঁড়ায়।’ এই পোস্ট সম্পর্কে অভিষেক বলেন, ”আপনি দলের কর্মীদের হয়ে যেদিন কাজ করবেন, সেদিন আপনার শক্ত শিরদাঁড়া প্রমাণিত হবে।” তবে এইসব বক্তব্য প্রসঙ্গে মুখ খুলতে নারাজ শ্রীরামপুরের সাংসদ। কল্যাণবাবুর মতে, ”ওটা ওঁর ব্যক্তিগত সাক্ষাৎকার। মতামতগুলোও ব্যক্তিগত। কোনও দলীয় প্রেসমিট নয়। ওঁর মন্তব্য ইগনোর করছি। আমি কি করেছি তার মূল্যায়ন আগামী দিনে মানুষ করবে।” রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বিবাদ আগাগোড়াই বর্তমান কল্যাণের। তাঁকে দলে ফেরানো নিয়ে খুব একটা খুশি নন সাংসদও। এই কারণেও অভিষেকের দিকেই তোপ দেগেছেন তিনি। অভিষেকের বক্তব্য, ”রাজীব ছাড়াও দু’জন যোগ দিয়েছেন দলে। আপনি তাঁদের বিষয়ে তো কিছুই বলছেন না। শুধু আপনার ব্যক্তিগত শত্রুতা আছে বলে আপনি মুখ খুলছেন। এসব হবে না।”

আরও পড়ুন:  Today Weather Update: টাটা শীত! দেখা কি মিলবে এরাজ্যে শীতের

Featured article

%d bloggers like this: