18 C
Kolkata

জঙ্গলমহলে ভোট প্রতিশ্রুতি শাহের

নিজস্ব সংবাদদাতা : মমতার দুয়ারে সরকার প্রকল্পের কটাক্ষ করে সেই পথেই হাটলেন অমিত শাহ। বাঁকুড়ার রানি বাঁধে প্রচার সভা থেকে আদিবাসীদের ঘরে বসে সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন বিজপি নেতা। আদিবাসীরা ঘরে বসেই শংসাপত্র পেয়ে যাবেন প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অমিত শাহ।

]আদিবাসী উন্নয়ন প্রকল্পের টাকা নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ শানিয়েছেন বিজেপি নেতা। সোমবার ঝাড়গ্রামের সভার উদ্দেশে আদিবাসী জনগণকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, ‘বাংলায় বিজেপি সরকারে এলে কী কী করবে তা ইস্তেহারে লেখা হচ্ছে।

কিন্তু আমি আপনাদের উদ্দেশে কয়েকটির কথা উল্লেখ করতে চাই। প্রথমেই আদিবাসী ছাত্রছাত্রীদের জন্য পণ্ডিত রঘুনাথ মুর্মু বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা হবে।’ এদিন ঝাড়গ্রামে সমাবেশে যোগ দেওয়ার কথা ছিল শাহের। কিন্তু হেলিকপ্টারে যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে তিনি সশরীরে যেতে পারেননি।

আরও পড়ুন:  Mamata Banerjee: আমার জীবনে লড়াই এখনও চলছে, সিঙ্গুরের স্মৃতি স্মরণ করলেন মমতা

খড়্গপুরের হোটেল থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তৃতা দেন শাহ। শাহ এদিন বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকার আদিবাসীদের জন্য একলব্য স্কুল শুরু করেছে। কিন্তু কেন্দ্রের সেই প্রকল্প বাংলায় বাস্তবায়িত করতে দেয়নি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার।

আমরা সরকারে এসে সমস্ত আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকায় একলব্য স্কুল গড়ে তুলব। এসটি সার্টিফিকেট পাওয়ার ব্যাপারে মানুষকে যে হয়রানির মধ্যে পড়তে হয়, তার সরলীকরণ করব।’

ঝাড়গ্রাম জেলায় পাঁচটি বিধানসভা রয়েছে। সেগুলি হল, ঝাড়গ্রাম, বিনপুর, গোপীবল্লভপুর, কেশিয়ারি এবং নয়াগ্রাম। এদিন পাঁচ কেন্দ্রের প্রার্থীর সমর্থনে ভোট প্রচার সারেন শাহ।

Featured article

%d bloggers like this: