25 C
Kolkata

মালদহে অস্ত্র কারখানার হদিশ, ধৃত ২

নিজস্ব সংবাদদাতা : এসটিএফ ও রাজ্যে পুলিশের যৌথ অভিযানে মালদহের কালিয়াচক থেকে গ্রেপ্তার হল ২ যুবক। ভোটের আগে রাজ্যে হিংসা রুখতে এই অভিযানকে পুলিশের বড় সাফল্য হিসেবেই দেখা হচ্ছে। কারখানা থেকে উদ্ধার হয়েছে প্রচুর অস্ত্রশস্ত্র।অস্ত্রবিরোধী অভিযানে বড়সড় সাফল্য পেল মালদহের কালিয়াচক থানার পুলিশ ও এসটিএফ। কালিয়াচকের এক বাড়ির ছাদে অস্ত্র কারখানার হদিশ পেলেন তাঁরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শনিবার গভীর রাতে কালিয়াচক থানার পুলিশ ও এসটিএফ যৌথ অভিযান চালায় আলিপুর ১নং গ্রাম পঞ্চায়েতের করারী চাঁদপুর গ্রামে। এলাকার বাসিন্দা হুমায়ুন শেখের বাড়ি তল্লাশির সময় অস্ত্র কারখানাটি নজরে পড়ে পুলিশ কর্তাদের।

কারখানাটি থেকে অত্যাধুনিক অস্ত্র তৈরির সরঞ্জামও উদ্ধার হয়। মূলতঃ নাইন এমএন পিস্তল-সহ রাইফেল তৈরি হত এই কারখানায়।উদ্ধার হওয়া সরঞ্জাম দেখে এমনই অনুমান করছেন পুলিশ কর্তারা।অস্ত্রের পাশাপাশি ঘটনাস্থল থেকে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ফারুক আহমেদ ও মহম্মদ আজম নামে ওই দু’জন বিহারের মুঙ্গেরের বাসিন্দা বলে জানতে পেরেছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন:  নওশাদের অন্তর্বর্তী জামিনের আরজি, তবে খারিজ আবেদন

আর এখানেই উসকে উঠছে সন্দেহ। সাধারণত এ রাজ্যের সীমান্তবর্তী এলাকা এমনকী কলকাতাতেও ‘মুঙ্গেরি’ অস্ত্রের চাহিদা প্রচুর। যে কোনও নাশকতামূলক কাজের জন্য ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এমনকী মুঙ্গের থেকে অস্ত্র কারবারিদের এ রাজ্যে নিয়ে এসেও কাজে লাগানো হয়।

Featured article

%d bloggers like this: