25 C
Kolkata

Bengali Literature Book Mall: আপনি বইপ্রেমী? আসছে বইমহল- বইয়ের শপিং মল!

শ্রাবণী পাল: দুনিয়াতে হয়তো এই একটা পোকাই আছে, যার হাত থেকে আক্রান্তরা কোনওদিনই বাঁচতে চায় না। বইপোকা। তাঁদের জন্যে উপহার আনছেন উত্তরবঙ্গের এক শিক্ষক। আলিপুরদুয়ারের একটি স্কুলে কর্মরত ডাঃ পার্থ সাহা। বাংলা সাহিত্যে পিএইচডি করার সময় বারবার ছুটে যেতে হয়েছে কলকাতায়। সেইদিনের ইচ্ছেকে বাস্তব রূপ দিতে চলেছেন তিনি। আলিপুরদুয়ারে গড়ে উঠছে ‘বইমহল’। এককথায় বইয়ের শপিং মল। ঠিকানা- আলিপুরদুয়ার কোর্ট, এনবিএসটিসির উল্টো দিকে (পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের পাশে)। ২০ জুলাই উদ্বোধনের সম্ভাবনা। যদিও নির্দিষ্ট দিন ঘোষণা হয়নি। কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা সাহিত্যের ইউজি, পিজি, এমফিল, পিএইচডি বিষয়ক সমস্ত বই পাওয়া যাবে।

উদ্যোক্তা ডাঃ সাহার কী-খবরকে জানিয়েছেন, ‘উত্তরবঙ্গের মানুষকে বইয়ের চাহিদায় যেন কলকাতায় ছুটে যেতে না হয়। শিক্ষার এই দূরত্ব ঘোচাতে চেয়েছি। এছাড়াও যেটা দেখছি, যুব সমাজের মধ্যে বই পড়ার নেশাটা একদম কমে গিয়েছে। অভিভাবকদের বলব, বাচ্চাকে খেলনার সঙ্গে একটা বইও দিন। ওদের কল্পনা শক্তির বিকাশ ঘটবে। স্নাতকোত্তর বা পিএইচডির সময় মালদা পর্যন্ত খুঁজেও অনেক বই আমি পাইনি। কলকাতায় যেতে হয়েছে বারবার। সবার সেই সামর্থ্য নেই। সাহিত্য জগতের খোলা আকাশ তৈরি হচ্ছে উত্তরবঙ্গে।’

সাহিত্যিক অর্ণব সেন

একাধিক নয়া উদ্যোগ নিয়েই যাত্রা শুরু করতে চলেছে বইমহল। উদ্যোক্তা আরও জানিয়েছেন, দুস্থ ছেলেমেয়ের জন্য লাইব্রেরির ব্যবস্থা রয়েছে। বিনামূল্যে। বছরে সাহিত্যে স্নাতক, স্নাতকোত্তর বা অন্যান্য স্তরের ৩ জন পড়ুয়ার বইয়ের জোগান দেবে বইমহল। পাঠকদের জন্য কার্ডের ব্যবস্থা রয়েছে, যা খরচসাপেক্ষ। একইসঙ্গে উত্তরবঙ্গের সাহিত্যিকদের সম্মানও জানানো হবে। প্রথম ‘বইমহল অনন্য সম্মান ২০২২‘ দেওয়া হবে আলিপুরদুয়ারের সাহিত্যিক অর্ণব সেনকে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের দিনই এই সম্মান দেওয়া হবে তাঁকে। আগামী দিনের যাত্রা নিয়ে খুবই আশাবাদী ডাঃ সাহা। উত্তরবঙ্গের জন্য ‘বাংলা সাহিত্যের একটুকরো আকাশ’ নিয়ে শীঘ্রই হাজির হচ্ছেন তিনি।

আলিপুরদুয়ারে বইয়ের শপিং মল- বইমহল

Featured article

%d bloggers like this: