20 C
Kolkata

হেঁটে নয়, নেটেই দেখুন পুজো

নিজস্ব সংবাদদাতা : কোভিডের থাবা। তাই মা উমার আরাধনা এবার ডিজিটাল। পুরুলিয়ার ভামুরিয়া বাথানেশ্বর সর্বজনীন পুজোর স্লোগান তাই “এবার হেঁটে নয়, নেটে দেখব পুজো।” ট্যাগলাইনও সেরকমই। “বোধন থেকে বিসর্জন, অনলাইনে সারাক্ষণ।” ফলে উৎসবের দিনগুলিতে ইমন-সহ একঝাঁক শিল্পীর বিচিত্রানুষ্ঠানও অনলাইন। কোভিডের সংক্রমণ রুখতেই অভিনব ভাবনায় ওয়েবসাইট থেকে ফেসবুক পেজ, ইউটিউব থেকে নিজস্ব অ্যাপ খুলেছে ভামুরিয়া সর্বজনীন। সেখান থেকেই অনলাইনে পুজো তুলে ধরবেন উদ্যোক্তারা। স্বাস্থ্যবিধিরও বার্তা দিচ্ছে এই পুজো কমিটি। তাই সোশ্যাল সাইট থেকে মণ্ডপজুড়ে সামাজিক দূরত্ব বজায়-সহ নানা  কথা তুলে ধরা হয়েছে। “সুস্থ থাকুন, অনলাইনে দুর্গাপুজো উপভোগ করুন” কিংবা “ভিড় জমায়েত এবার বারণ, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলুন” বা “নিয়ম মেনে চললে তবেই করোনা যুদ্ধে বিজয় হবেই” – এ ধরনের বার্তাই দিচ্ছেন উদ্যোক্তারা। পুজো কমিটির সম্পাদক হীরালাল মাঝি বলেন, “কোভিড সংক্রমণ রুখতেই পুজোকে ঘিরে আমাদের এমন ভাবনা। সেই সঙ্গে মায়ের কাছে প্রার্থনা এই অতিমারি থেকে রক্ষা করো।” থিম সংয়েও মায়ের কাছে করোনা দূর করার বার্তা দিয়েছেন তিনি। রূপংকরের গাওয়া “মায়ের আগমন, করোনার গমন ” গান ইতিমধ্যেই সাড়া ফেলেছে। পুজো আয়োজকরা জানিয়েছেন, এই থিম সং দিনভর বাজবে মণ্ডপে। তবে এই পুজো ডিজিটাল হলেও পুজোর থিম কিন্তু একটা আলাদা রয়েছে। থিম সঙেও সেই ভাবনার কথা তুলে ধরা হয়েছে। আর তা হল “ঝরা ফুল রাশে রাশে, মা দুর্গার আশেপাশে।” চায়ের কাপ কেটে শিউলি ফুল তৈরি করে সাজানো হয়েছে মণ্ডপ। একনজরে যা চোখ টানছে। তাছাড়া বরাবরের মতো এবারও মণ্ডপজুড়ে সরকারি প্রকল্পের প্রচার করা হয়েছে। পুজো কমিটির বার্তা একটাই, এবার আনন্দের জোয়ারে ভাসব একটু অন্যভাবে। নতুন জামা, নতুন কাপড়ের সঙ্গে থাকবে মাস্ক ও স্যানিটাইজার।

আরও পড়ুন:  বাজেট প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীকে তোপ রাজ্যের অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের

Featured article

%d bloggers like this: