33 C
Kolkata

Swasthya Sathi Fine: স্বাস্থ্য সাথী: দুর্নীতি দমনে ২৩ হাসপাতালকে জরিমানা মমতার

নিজস্ব প্রতিবেদন: স্বাস্থ্য ব্যবস্থার দিক থেকে রাজ্য নিজেকে দেশের মধ্যে শীর্ষস্থানাধিকারী হিসেবেই দাবি করে আসছে। সেই দাবিতে শিলমোহর দিয়েছে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প। রাজ্য সরকারের অন্যতম সফল প্রকল্পগুলির মধ্যে এটি একটি। কোনও প্রকার জালিয়াতি বা দুর্নীতি বরদাস্ত করবে না প্রশাসন। এই হুঁশিয়ারি আগেভাগে দিলেও এবার কড়া পদক্ষেপ নিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  মাত্র তিন মাসে কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি সহ বিভিন্ন জেলা মিলিয়ে মোট ২৩টি বেসরকারি হাসপাতালকে বিপুল অঙ্কের জরিমানা করল রাজ্য। এর পরিমাণ পরিমাণ ৫ কোটি ৩১ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা। ইতিমধ্যে ৯৫ শতাংশ উসুল করতে সক্ষমও হয়েছে কর্তৃপক্ষ। এক স্বাস্থ্য আধিকারিক জানান, অনেক হাসপাতালই সচ্ছতার সঙ্গে স্বাস্থ্যসাথী হার্ড নিয়ে পরিষেবা দিচ্ছে। সমান তালে অনেকেই এই প্রকল্পের আধারে দুর্নীতিও চালিয়ে যাচ্ছে। কোথাও মানুষকে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নিয়ে ভুল বুঝিয়ে তা ব্লক করে দেওয়া হচ্ছে। কোথাও আবার একজন রোগীর চিকিৎসার জন্যে দু’টি প্যাকেজ তৈরি হচ্ছে। যাতে কার্ডের খরচ বাড়ে। মঙ্গলবার স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নিয়ে একটি বৈঠক হয়। উপস্থিত ছিলেন্ন রাজ্যের স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণস্বরূপ নিগম ও স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডাঃ সিদ্ধার্থ নিয়োগী। তাঁদের স্পষ্ট নির্দেশ, রাজ্যের প্রকল্প নিয়ে কোনও রকম দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না। বৈঠকের পরই এই বিপুল পরিমাণ জরিমানার সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন।

আরও পড়ুন:  Greenfield expressway: মাত্র ৬ ঘন্টায় শিলিগুড়ি
আরও পড়ুন:  BJP : দেশে ১৪৪ টি এবং বাংলায় ১৯ টি হারা আসনে নজর পদ্ম শিবিরের

জানা গেছে, ২৩টি হাসপাতালের মধ্যে রয়েছে কলকাতার দু’টি (বেহালা, পার্ক সার্কাস), মালদহ এবং মুর্শিদাবাদের দু’টি করে, বাঁকুড়ার চারটি, নদীয়ার চারটি, উঃ ২৪ পরগনার একটি, দঃ ২৪ পরগনার চারটি নার্সিংহোম রয়েছে। এরমধ্যে কলকাতার দু’টি হাসপাতালের উপরই ধার্য হওয়া কর সর্বাধিক। জরিমানা ১ কোটি ২৩ লক্ষ টাকা। এরপর রয়েছে বীরভূম। চারটির মধ্যে একটিতেই ধার্য  ৯৪ লক্ষ ১৯ হাজার টাকা। জরিমানা শুধু যে জরিমানা হয়েছে তা নয়। একই সঙ্গে আগামী ছ’মাস স্বাস্থ্য সাথী কার্ডে রোগী ভর্তি বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য। জরিমানার টাকা মিটিয়ে রোগী ভর্তি চালু করা যাবে। এরই মধ্যে অনেক হাসপাতাল টাকা মিটিয়েও দিয়েছে।

Featured article