24 C
Kolkata

লকডাউনে কর্মীদের পুরো বেতন দিতে বাধ্য নয় মালিকপক্ষ

নিজস্ব সংবাদদাতা :: লকডাউনে কর্মীদের বেতন কাটলেও মালিকপক্ষের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া যাবে না। গত সপ্তাহেই কেন্দ্রকে এই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। এবার কেন্দ্র নিজেই পিছিয়ে এল। কর্মীদের পুরো বেতন দেওয়ার যে নির্দেশ বেসরকারি সংস্থাগুলিকে দেওয়া হয়েছিল, তা প্রত্যাহার করে নিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। ফলে, এখন থেকে মালিকপক্ষ আর কর্মীদের পুরো বেতন দিতে বাধ্য নয়। লকডাউনের জেরে এমনিতেই চরম সমস্যায় নিম্ন মধ্যবিত্ত বেসরকারি চাকুরেরা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক নির্দেশিকা প্রত্যাহার করায় এবার আরও সমস্যা বাড়বে তাঁদের। অন্যদিকে, যে সব সংস্থা লোকসান সামলে কর্মীদের বেতন দিতে পারছিল না, তারা এবার খানিকটা স্বস্তি পেল।
লকডাউন চলাকালীন যাতে বেসরকারি কর্মীদের বেতন না কাটা হয় তা নিশ্চিত করতে গত ২৯ মার্চ একটি নির্দেশিকা দেয় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক । যাতে বলা হয়, যতদিন লকডাউন চলবে ততদিন কোনও বেসরকারি সংস্থা কর্মীদের বেতন কাটতে পারবে না। কলকারখানা থেকে শুরু করে পাড়ার দোকান পর্যন্ত, সকল ছোটবড় সংস্থাই এর আওতায় ছিল। কিন্তু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সেই নির্দেশিকায় বিরুদ্ধে গতমাসের শেষের দিকে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করে কয়েকটি বেসরকারি সংস্থা। তাঁরা এই নির্দেশিকার সাংবিধানিক বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলে।গত শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ কেন্দ্রের সেই নির্দেশিকায় স্থগিতাদেশ দেয়। জানিয়ে দেয়, চলতি সপ্তাহ পর্যন্ত বেতন কাটলেও সংস্থার মালিকদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যাবস্থা নেওয়া যাবে না। সেই সঙ্গে এক সপ্তাহের মধ্যে এ বিষয়ে কেন্দ্রকে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করার নির্দেশ দেয় সর্বোচ্চ আদালত। কেন্দ্র আর সুপ্রিম কোর্টের সেই নির্দেশের বিরোধিতা না করে নিজেদের নির্দেশিকাই প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এর ফলে এখন নিশ্চিন্তে কর্মীদের বেতন কাটতে পারবে বেসরকারি সংস্থাগুলি। আইনত আর কোনও বাধাই রইল না।এদিকে কেন্দ্র নির্দেশিকা তুলে নেওয়ায় মাথায় হাত পড়েছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মীদের।

আরও পড়ুন:  Mamata Banerjee : নিয়োগ করতে চেয়েও পারছেননা মুখ্যমন্ত্রী ! কি কারণে ?

Featured article

%d bloggers like this: