19 C
Kolkata

Lokayukta West Bengal: রাজ্যের নতুন লোকায়ুক্ত হলেন অসীম রায়, রাজ্যপালের ভূমিকা নিয়ে উষ্মা প্রকাশ মমতার

নিজস্ব সংবাদদাতা : লোকায়ুক্ত নিয়ে সোমবার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিধানসভা ভবনে অধ্যক্ষর দফতরে এই বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে যে কমিটি এই নিয়োগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়, পদাধিকারবলে সেই কমিটিতে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, পরিষদীয়মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

বিধানসভা সূত্রে খবর, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিধানসভা স্পিকারের বৈঠকে ঠিক হয় রাজ্যের নতুন লোকায়ুক্ত হবেন অসীম রায়। যদিও বিরোধী দলনেতার অভিযোগ, রাজ্যের প্রস্তাবিত নাম দেখে তিনি বিকল্প প্রস্তাব দিতে পারেন। কিন্তু, নবান্নে সেকথা জানিয়ে চিঠি দিলেও প্রত্যুত্তরে কোনও পদক্ষেপ করেনি রাজ্য সরকার। প্রসঙ্গত, মুখ্যমন্ত্রী, স্পিকার ও বিরোধী দলনেতার আলোচনার ভিত্তিতে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ও সদস্য নির্বাচনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

আরও পড়ুন:  South Dinajpur: ক্ষতবিক্ষত এক শ্রমিক

ওই কমিটির আলোচনার ভিত্তিতে নিয়োগে চূড়ান্ত অনুমোদন দেন রাজ্যপাল। বিধানসভা সূত্রে খবর, লোকায়ুক্ত ও মানবাধিকার কমিশন নিয়োগের বৈঠক শেষে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের নাম না করে তীব্র উষ্মা প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার বিধানসভায় স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরে মুখ্যমন্ত্রী বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘এই বিষয়ে ভারত সরকারের নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম আছে।

আমরা এই নিয়োগের ক্ষেত্রে সেই সব নিয়ম মেনে চলেছি। এই পদে নিয়োগের জন্য সুপ্রিম কোর্টের যে নির্দিষ্ট নির্দেশ রয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকারের গাইডলাইন রয়েছে, সবগুলিই মানা হয়েছে।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘আমরা সাতদিন আগে চিঠি দিয়ে বিষয়টি সবাইকে জানিয়েছিলাম। এই পদে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিদের বসানো হয়। আমি মনে করি প্রত্যেকের নিজস্ব সাংবিধানিক সীমাবদ্ধতা আছে। আমার কাজ আমি করব ওঁর (রাজ্যপাল) কাজ উনি করবেন।’’

আরও পড়ুন:  জঙ্গিদের সেভ প্যাসেজ ও মুক্তাঞ্চল…..

লোকায়ুক্ত হিসেবে রাজ্যপালের কাছে নাম গেল প্রাক্তন বিচারপতি অসীম রায়ের। মানবাধিকার কমিশনের সদস্য চেয়ারম্যান পদে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জ্যোতির্ময় ভট্টাচার্য এবং এই কমিটির সদস্য হিসেবে শিবকান্ত প্রসাদের নাম চূড়ান্ত করে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের কাছে পাঠানো হয়েছে। তাতে অনুমোদন দিলে তবেই এই পদগুলি সাংবিধানিক ভাবে কাজ করার অধিকার পাবে।

Featured article

%d bloggers like this: