24 C
Kolkata

সফল ভাবে পৃথিবীতে ফিরলেন NASA-র ২ নভশ্চর

নিজস্ব সংবাদদাতা :: মহাকাশ মিশন শেষ করে সফল ভাবে পৃথিবীতে ফিরে এলেন আমেরিকার ‘স্পেস এক্স’ মিশনের দুই নভশ্চর রবার্ট বেনকেন ও ডগ হার্লে। পৃথিবীর কক্ষপথ থেকে সোজা পৃথিবী পৃষ্ঠে নামলেন এই দুই নভশ্চর। সেই সঙ্গে মহাকাশ গবেষণার ইতিহাসে লেখা হল এক নতুন অধ্যায়। রবিবার দুপুর ২টো ৪৮ মিনিটে ফ্লোরিডার গাল্ফ অব মেক্সিকোর পেনসাকোলা উপকূলে সমুদ্রের উপর সেফ ল্যান্ডিং করেন দুই নভশ্চর রবার্ট বেনকেন ও ডগ হার্লে। ভারতে তখন মধ্য রাত। এ জাতীয় অবতরণকে জ্যোতির্বিদ্যার ভাষায় স্প্ল্যাশ ডাউন বলা হয়। ৪৫ বছরের মধ্যে এই প্রথম আমেরিকান নভোশ্চররা নিরাপদে অবতরণ করলেন। পৃথিবীর কক্ষপথ থেকে পৃথিবী পৃষ্ঠে এই অবতরণ সহজ ছিল না। রকেট একটার পর একটা খোলস ছাড়ার পর তার মধ্যে থেকে বেরিয়ে এসেছে ক্যাপসুল। সেই ক্যাপসুল থেকে প্যারাসুটে চেপে সোজা সমুদ্রের বুকে ঝাঁপ দিয়েছেন এই দুই নভশ্চর। তাদের দুজনের জন্য সমুদ্রে প্রস্তুত ছিল একটি বোট। জলের মধ্যে তাদের দুজনের প্যারাশুট পড়তেই ২ নভশ্চরকে উদ্ধার করা হয়। তাদের ল্যান্ডিংয়ের পুরো ঘটনাটি লাইভ দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়েছিল। দুজন প্রথমবার কোন বেসরকারি স্পেস মিশনে মহাকাশে গিয়েছিলেন এবং সেই কাজে সফল হয়ে ফিরে এসেছেন পৃথিবীর বুকে। আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে শূন্য মাধ্যাকর্ষণ নিয়ে তাঁরা কাজ করেছেন। ১০০ ঘণ্টা স্পেস স্টেশনের ল্যাবরেটরিতে কাজ করেছেন। মহাকাশ থেকে মাঝেমধ্যেই পৃথিবী পৃষ্ঠের নানা ছবি তুলেও পাঠিয়েছেন। ১৯৮১ সাল থেকে পৃথিবীর কক্ষপথে অবস্থিত আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে মানুষ পাঠানো শুরু করে নাসা। তবে বেশ কয়েকবার দুর্ঘটনাও ঘটেছে। ১৯৮৬ সালে চ্যালেঞ্জার ও ২০০৩ সালে কলম্বিয়া মহাকাশযানটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। শেষ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত নভশ্চর কল্পনা চাওলা।

আরও পড়ুন:  টুইটার-মেটা-অ্যামাজনের পথেই হাঁটছে গুগল, কাজ হারাতে পারেন ১০ হাজার কর্মী

Featured article

%d bloggers like this: