28 C
Kolkata

synthetic embryo: নেই ডিম্বাণু – শুক্রাণু তবু জন্ম ভ্রূণের

ইজরায়েল: নর ও নারীর মিলন ছাড়া প্রজনন সম্ভবপর নয়। এটাই বাস্তব জীবনের অভিজ্ঞতা বিজ্ঞানের সাক্ষী। তবে বিজ্ঞানের এই সত্যকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন বিজ্ঞানীরা। ডিম্বানু ও শুক্রাণু ছাড়াই তৈরি করলেন ভ্রুন।

আমরা ছোট থেকেই পড়ে আসছি ভ্রুন তৈরি করতে লাগে ডিম্বানু ও শুক্রাণুর নিষেক। পরিণত প্রাণীদের মধ্যে এই নিষেকের ফলেই তৈরি হয় ভ্রুণ। জিন তত্ত্ব অনুযায়ী পুরুষ ও নারীর জিনের অর্ধেক অর্ধেক অংশ মিলে গঠিত করে নতুন প্রজন্মের জিন। তবে এবার কি আর জিনও লাগবেনা? কি করে সম্ভব এই প্রজনন? এ ঘটনা শুধু আশ্চর্যজনক, নয় বিস্ময়কর নয়, এক অভূতপূর্বক ঘটনা।

ঘটনাটি সফল করেছেন ইজরাইলের ‘উইজমান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স’-এর বিজ্ঞানীরা। তারা তাদের গবেষণা দিয়ে দিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে সারা বিশ্বকে। এই গবেষণার পত্র প্রকাশিত হয়েছে বিখ্যাত ‘সেল’ নামক বিজ্ঞান পত্রিকায়। বাবা-মা, ডিম্বাণু-শুক্রাণু ছাড়াই ‘অ্যাসিসটেড রিপ্রোডাকশন টেকনোলজি’ পদ্ধতিতে গঠিত এই ধরনের ভ্রূণ পৃথিবীতে এই প্রথম। এটি বিজ্ঞানের দুনিয়ায় এক যুগান্তকারী মাইলফলক বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন:  Blade: ব্লেড তো ব্যবহার করেন, কিন্তু জানেন কি এর মধ্যে নকশা করা থাকে কেন?

‘সেল’- এ প্রকাশিত এই পত্রতে বিজ্ঞানীরা বলেছেন ডিম্বানু বা শুক্রাণু ছাড়া, শুধু স্টেম সেল দিয়ে এই প্রজনন সম্ভবপর হয়েছে। যদিও এই গবেষণাটি এখন শুধু ইঁদুরের স্টেম সেল এর ওপর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:  গোপন থাকবে না কলারের পরিচয়, সরকারের নতুন নিয়ম রুখবে মোবাইল প্রতারণা

বিজ্ঞানীরা তিন ধাপে সংগ্রহ করে এই স্টেম সেল। তারপর বভিন্ন বৈজ্ঞানিক উপায় তা ভ্রুণ তৈরির উপযুক্ত করে তৈরি করে। এইভাবেই কৃত্রিম ভ্রূণ তৈরি করতে সক্ষম ইঁদুরের ক্ষেত্রে। তবে মানুষের ভুল তৈরি করা, যে আরো কষ্টসাধ্য তা তাঁরা বলেছেন।

Featured article

%d bloggers like this: