33 C
Kolkata

Twitter News: Spam নিয়ে তুমুল তরজা Twitter-এ! পরাগ আগরওয়ালকে খিল্লি করলেন Elon Musk!!

নিজস্ব প্রতিবেদন: স্প্যামবট এবং ফেক প্রোফাইল নিয়ে Twitter-এর সমস্যা যেন মিটছেই না। কয়েকদিন আগে SpaceX CEO Elon Musk Twitter কিনে নিয়েছেন। কিন্তু এরপর পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে। কারণ Elon Musk একটি টুইট করে জানিয়েছেন, Twitter কেনার বিষয়টি এখন আপাতত স্থগিত রাখছেন। কারণ স্প্যামবট এবং ফেক প্রোফাইল নিয়ে সমস্যা মেটেনি।

এরপর Twitter-এর বর্তমান CEO পরা়গ আগরওয়ালের একটি টুইট নিয়ে জোড় চর্চা শুরু হয়েছে। সোমবার এই সংক্রান্ত একটি টুইট করেন পরাগ আগরওয়াল। সেখানে তিনি লেখেন, গত চারটি ত্রৈমাসিকের হিসেবে Twitter-এ স্প্যামবট এবং ফেক অ্যাকাকউন্টের সংখ্যা ৫ শতাংশের কম।এই টুইটের পিছনে একটি কারণ রয়েছে। তা হল কয়েকদিন আগে Elon Musk-এর তরফে একটি টুইট করে বলা হয়, Twitter-এ স্প্যামবট এবং ফেক অ্যাকাকউন্টের সংখ্যা ৫ শতাংশের কম সেবিষয়ে Twitter-এর তরফে কোনও স্পষ্ট যুক্তি দেওয়া হয়নি। আর তাই Twitter কেনার বিষয়টি আপাতত সাময়িক স্থগিত রাখছেন তিনি।

এরসঙ্গে টুইটারে পরাগ আগরওয়াল আরও লেখেন, টুইটার আশা করছে ২০১৩ সাল থেকেই পরিস্থিতি একই রকমের রয়েছে।যদিও টুইটারের CEO পরাগ আগরওয়ালের টুইটের নীচে একটি বিষ্ঠার ইমোজি পোস্ট করেন এলন মাস্ক। এবং তিনি লেখেন, “(স্প্যাম বট,ফেক প্রোফাইল থাকার ফলে) বিজ্ঞাপনদাতারা কীভাবে বুঝতে পারবেন যে তাদের টাকার বিনিময়ে কী পাচ্ছেন তারা? Twitter-এর সম্পূর্ণ অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য এই বিষয়টি অত্যন্ত জরুরি। এরপর মিয়ামিতে একটি কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করেন মাস্ক। সেখানে তিনি অত্যন্ত জোর দিয়ে জানান, তিনি মনে করছেন বট এবং Twitter এর অটোমেটেড অ্যাকান্টের সংখ্যা মোট ব্যবহারকারীর ২০ থেকে ২৫ শতাংশ।এলন মাস্কের এই ঘোষণার পর Twitter এর শেয়ারদর এক ধাক্কায় অনেকটা কমে যায়। সোমবার বিকেলে ট্রেডিংয়ের সময় দেখা যায় ৭.৭ শতাংশ কমেছে টুইটারের শেয়ার দর।

আরও পড়ুন:  Toy Train: সোনার মুকুটে নয়া পালক, গড়াতে শুরু করল টয় ট্রেনের চাকা
আরও পড়ুন:  Cockroach Killing Machine: আরশোলা মারুন মেশিন দিয়ে

টুইটার নিয়ে আগেই তোপ দেগেছিলেন এলন মাস্ক। মাস খানেক আগে একটি টুইটে তিনি লিখেছিলেন, টুইটারের মডারেশন পলিশি এবং অ্যাটলগরিদমে অনেক সমস্যা রয়েছে। যদিও এর ঠিক পরেই টুইটারের কিছু শেয়ার কিনে নিয়েছিলেন তিনি। এবং পরবর্তীতে টুইটারকেই কিনে নেন Elon Musk।

Featured article

%d bloggers like this: